লক্ষ্মীপুরে সমকাল’র উদ্যোগে বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব

নিজস্ব প্রতিবেদক :

লক্ষ্মীপুরে বিএফএফ-সমকাল উদ্যোগে জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব ২০২১অনুষ্ঠিত। প্রাণবন্ত এই বিতর্ক অনুষ্ঠানে চ্যাম্পিয়ন হয় লক্ষ্মীপুর আদর্শ সামাদ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় ও রানার্সআপ হয় লক্ষ্মীপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়। যুক্তি পাল্টা যুক্তি প্রদানের মাধ্যমে জাতীয় বিজ্ঞান বিতর্ক উৎসব ২০২১ উঠে আসে বিজ্ঞানপ্রিয় ক্ষুদে শিক্ষাথীদের বিভিন্ন ভাবনা। তারা বলেন, প্রযুক্তির সুফল নিশ্চিত করতে সকলের সচেতনতা জরুরি।কারন প্রযুক্তি একটি মাধ্যম। তার ইতিবাচক ব্যবহারের মাধ্যমে এর সুফল নিশ্চিত হবে। অন্যথায় প্রযুক্তির করাল গ্রাসে সমাজ বিনষ্ট হবে। অংশগ্রহনকারী বিতার্কিকদের বক্তব্যে বার বার উঠে আসে উন্নত ও সমৃদ্ধ জাতি বিনির্মাণে বিজ্ঞানের কোন বিকল্প নেই। তাই বিজ্ঞান চর্চার পাশাপাশি এর ইতিবাচক ব্যবহার নিশ্চিতে সকলকে আরো বেশি সচেতন হতে হবে।

শুক্রবার দিনব্যাপি শহরের প্রাণ কেন্দ্রে অবস্থিত লক্ষ্মীপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের হলরুমে প্রাণবন্ত উপস্থিত যুক্তিতর্কে জমে ওঠে এই এ আয়োজন। বিতর্ক মানেই যুক্তি,বিজ্ঞানে মুক্তি স্লোগানকে সামনে নিয়ে বিভিন্ন রাউন্ডে যুক্তিতর্কের লড়াইয়ে যুক্তিতর্কের মধ্যদিয়ে প্রিন্সিপাল কাজী ফারুকী স্কুল এন্ড কলেজ, লক্ষ্মীপুর সরকারি বালিকা উচচ বিদ্যালয়, লক্ষ্মীপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের, রায়পুর সরকারি মার্চ্চেটস একাডেমী, প্রতাপগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়,লক্ষ্মীপুর কলেজিয়েট উচ্চ বিদ্যালয়,লক্ষ্মীপুর পৌর শহীদ স্মৃতি একাডেমী, লক্ষ্মীপুর কলেজিয়েট উচ্চ বিদ্যালয়, লক্ষ্মীপুর আদর্শ সামাদ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়সহ ৮ টি দল অংশ নেয়। রাউন্ড ভিত্তিক বিতর্কে ফাইনালের মঞ্চে লড়াইয়ে উপনিত হয় চ্যাম্পিয়ন হয় লক্ষ্মীপুর আদর্শ সামাদ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়। স্বাস্থ্যবিধি মেনে যুক্তির লড়াইয়ে শ্রেষ্ঠ বক্তা নির্বাচিত হয় রানার্সআপ দলের দলনেতা লক্ষ্মীপুর সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী আফরিদা তাহসিন হৃদিতা।

অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হন, লক্ষ্মীপুর জেলার জেলা প্রশাসক মো: আনোয়ার হোছাইন আকন্দ। তিনি চ্যাম্পিয়ন, রানার্স ও শ্রেষ্ঠ বক্তার হাতে ক্রেস্ট তুলে দেন।

এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি মো: হোসাইন আহম্মদ হেলাল, দেশের প্রথম নারী গভর্নমেন্ট প্লিডার এডভোকেট সেলিনা আক্তারসহ সাবেক বির্তাকিক সহ অনেকে।

এ সময় শিক্ষকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন অপু চন্দ্র দাস, ওমর ফারুক ও বিতর্ক প্রতিযোগিতার প্রধান সমন্বয়ক ও সমকাল প্রতিনিধি আতোয়ার রহমান মনির,শিক্ষা ও চাকুরী ক্ষেত্রে চট্রগ্রাম বিভাগীয় পর্যায়ের শ্রেষ্ঠ জয়িতা ও সমকাল সহৃদ লক্ষ্মীপুর জেলা সভাপতি আইরিন সুলতানা,সহ-সভাপতি মাহবুবের রহমান, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রেবেকা সুলতানা,সহ দপ্তর সম্পাদক আব্দুর রহিম ও প্রাক্তন বির্তাকিক মো: রাহীম উল ইসলাম, হোমায়রা জান্নাত অন্বেষা,জয়নব বিনতে মাহমুদ তাকিয়া,আশরাফুল ইসলাম হিমেল,আয়মান মাহমুদ,ফাহিম ইফতেখার,সুদীপ্ত মজুমদার ও মো.মামুনসহ অনেকে।

বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন সহকারি কমিশনার ভূমি (লক্ষ্মীপুর সদর) ও প্রাক্তন বির্তাকিক মো : মামুনুর রশিদ, লক্ষ্মীপুর ডিবেট এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মাজেদ আজাদ, সহ-সভাপতি আজিজুর রহমান খান বুলবুল, সাধারণ সম্পাদক, মো : আরিফুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এইচ,এম, মাঈন উদ্দিন ইফতি, প্রভাষক,নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ও এনএসটিইউ ডিবেটিং সোসাইটি সহকারি মডারেটর এ,কিউ,এম সালাউদ্দিন পাঠান,অংশগ্রহণকারী ৮টি বিদ্যালয়ের বিতার্কিকরা লটারির মাধ্যমে ৪টি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে বিতর্কে অংশ নেয়।

Print Friendly, PDF & Email