ফেব্রুয়ারিতে বিচার শুরু হচ্ছে ট্রাম্পের, এখানেও ‘রেকর্ড’

দ্বিতীয়বার অভিশংসন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সদ্য বিদায় নেওয়া মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিচার শুরু হবে ফেব্রুয়ারিতে। মার্কিন সিনেটে আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি এই বিচার প্রক্রিয়া শুরু হবে। খবর বিবিসির।

সিনেটে ডেমোক্র্যাট ও রিপাবলিকানদের একটি সমঝোতায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

এক্ষেত্রেও রেকর্ড বইয়ে নাম উঠতে যাচ্ছে ট্রাম্পের। কেননা, তিনিই হতে যাচ্ছেন একমাত্র মার্কিন প্রেসিডেন্ট যিনি ক্ষমতা থেকে বিদায় নেওয়ার পরও দেশটির সিনেটে বিচারের মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন।

এর আগে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে দ্বিতীয়বার অভিশংসিত হয়েও প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে লজ্জাজনক রেকর্ড গড়েন তিনি।

উল্লেখ্য, মার্কিন পার্লামেন্ট ভবন ‘ক্যাপিটল হিলে’ ‘সহিংসতায় উস্কানি’ দেওয়ার অভিযোগে ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসন আর্টিকেলটি সোমবার সিনেটে পাঠাবেন ডেমোক্র্যাটরা।

কিন্তু ৮ ফেব্রুয়ারির আগে এই বিষয়ে শুনানি শুরু হবে না। কেননা, ট্রাম্পের পক্ষে বক্তব্য তুলে ধরার জন্য তার আইনজীবীদের দুই সপ্তাহ সময় দেওয়া হবে।

প্রসঙ্গত, ক্যাপিটল হিলে সহিংসতার জন্য গত সপ্তাহে ট্রাম্পকে দ্বিতীয়বারের মতো অভিশংসিত করেছে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদ। ফলে এখন সিনেটে তার বিচার প্রক্রিয়া শুরু হবে।

সেক্ষেত্রে তিনিই হবেন মার্কিন সিনেটে বিচার হওয়া সাবেক প্রেসিডেন্ট হিসেবে প্রথম ব্যক্তি।

এর আগে আর কোনও প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে এভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। দোষী সাব্যস্ত হলে ভবিষ্যতে আর কোনও সরকারি দায়িত্ব পালন করতে পারবেন না ট্রাম্প।

তার বিরুদ্ধে দ্বিতীয়বারের এই বিচার কার্যক্রম শুরু হচ্ছে ঠিক প্রায় এক বছর পরে, যখন সিনেট তার বিরুদ্ধে ক্ষমতার অপব্যবহার আর কংগ্রেসের কাজে বাধা দেওয়ার মতো অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দিয়েছিল।

জো বাইডেন এবং তার ছেলের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করার জন্য ইউক্রেনের ওপর চাপ দেওয়ার অভিযোগ ওঠায় সেবার তাকে অভিশংসিত করেছিল মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদ।

ট্রাম্পের মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে গত ২০ জানুয়ারি এবং তিনি জো বাইডেনের অভিষেকের আগেই ওয়াশিংটন ছেড়ে চলে গেছেন।

হাউজ অব রিপ্রেজেন্টিটিভে (প্রতিনিধি পরিষদ) অভিশংসন প্রস্তাব পাস হলেও সেটা সিনেটে শুনানির পর দুই-তৃতীয়াংশ ভোটে পাস হতে হবে।

Print Friendly, PDF & Email