বাহরাইনের প্রথম সরকারি প্রতিনিধি ইসরায়েলে

মধ্যপ্রাচ্যের মুসলিম দেশ বাহরাইনের প্রথম সরকারি প্রতিনিধি আজ ইসরায়েলে গিয়েছেন। এর মধ্য দিয়ে মুসলিম দেশটির সঙ্গে ইসরায়েলের সম্পর্ক আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হলো। কিছুদিন আগে ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের অঙ্গীকার করে বাহরাইন ও সংযুক্ত আরব আমিরাত। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যস্ততায় ইসরায়েলের সঙ্গে নতুন সম্পর্ক স্থাপনের মধ্য দিয়ে ফিলিস্তিন প্রশ্নে ইসরায়েলের প্রতি তাদের পূর্ব অবস্থানে ব্যাপক পরিবর্তন আসলো বলে মনে করা হচ্ছে।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র চায়, এ অঞ্চলে ইরানের প্রভাব হ্রাস করতে এবং মার্কিন মিত্রদের স্বার্থ সুরক্ষিত হয়, এমন পরিবেশ বজায় রাখতে।  সুন্নিপন্থী বাহরাইন ও আরব আমিরাতও শিয়াপন্থী ইরানের প্রভাব মধ্যপ্রাচ্যে বাড়ুক, এমনটা চায় না তারা।  উভয় পরিকল্পনার অংশ হিসেবে ইসরায়েলের সঙ্গে মুসলিম দেশ দুটি নতুন সেতু বন্ধন শুরু করল বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। অথচ, মুসলিম বিশ্ব ফিলিস্তিন প্রশ্নে ইসরায়েল রাষ্ট্রকে নিয়ে বেশ কট্টর অবস্থানেই ছিল।

আজ তেল আবিবে পৌছানো বাহরাইন সরকারের প্রতিনিধিদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল লতিফ জায়ানি। আব্দুল লতিফ জায়ানি জেরুজালেম সফররত মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও ও ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। এর মধ্যে সুদানও সম্পর্ক স্বাভাবিক করবে বলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র দাবি করেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আরও দাবি করেছে, অন্যান্য অনেক দেশই ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করবে। সূত্র: দ্য ন্যাশনাল।

Print Friendly, PDF & Email