‘নতুন প্রেমে’র কথা জানালেন অভিনেত্রী শাওন

ঢাকা: জনপ্রিয় অভিনেত্রী শাওন। জনপ্রিয় কথা সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের মৃত্যুর পরপরই গুঞ্জন ওঠে অন্যপ্রকাশের সত্বাধিকারী মাজহারুল ইসলামের প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। এ নিয়ে কোনোদিন মুখ খুলেননি শাওন।

তবে এবার মাজহারুল ইসলামের জন্মদিন উপলক্ষে হুমায়ুন আহমেদ, মাজহারুল ইসলাম ও নিজের একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে বিষয়টি খোলাসা করেন তিনি। ফেসবুকে স্ট্যাটাসে শাওন লিখেন তার সঙ্গে আমার প্রেম রয়েছে। তবে মায়ের পেটের ভাইয়ের মতো। এছাড়া অন্যকিছু নয়।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে শাওন বলেন,  এই মানুষটার (মাজহারুল ইসলাম) সঙ্গে আমাকে নিয়ে একটা কথা টুকটাক শোনা যায়। কথাটা বেশ অস্বস্তিকর। তার স্ত্রী আর আমি বিষয়টি নিয়ে চরম খুনসুটি আর হাসাহাসি করলেও, আমাদের সঙ্গে নতুন বন্ধুত্ব হওয়া কেউ কেউ ইতং বিতং করে প্রসঙ্গটা তোলেন আর অপ্রস্তুত হয়ে বলেন, ‘ আহা! বাইরে থেকে কি ভুল ধারণা নিয়েই না ছিলাম! মাজহার ভাইয়ের স্ত্রী স্বর্ণা আমার সবচে কাছের সহচর। দিনের মধ্যে ৩-৪ বার দেখা করে সারাদিনের প্যাঁচাল নিয়ে বকরবকর না করলে আমাদের পেটের ভাত হজম হয় না। এই অসাধারণ মানুষটির স্বামীর সঙ্গে নাকি আমার প্রেম!’

স্ট্যাটাসে শাওন আরও লেখেন, ‘হ্যাঁ… তার সঙ্গে আমার প্রেম। আমার কিশোরীবেলায় প্রণয়নের সময় আমি যখন হুমায়ুন আহমেদের সঙ্গে ছেলেমানুষী রাগ করতাম তখন তিনি বড় ভাইয়ের মতো আমার ভুল ভাবনাগুলো ধরিয়ে দিয়ে আমাকে শান্ত করতেন। উনি আমার আরেক মায়ের গর্ভে জন্ম নেওয়া বড় ভাই- তার সঙ্গে আমার ভাইয়ের মতো প্রেম।’

কর্কট রোগের চিকিৎসা চলাকালীন হুমায়ুন আহমেদের আপন ভাইদের যে দায়িত্ব ছিল সেই দায়িত্ব তিনি পালন করেছেন। কখনও বাজার করে আনা তো কখনও হুমায়ুন ভাইয়ের পছন্দের খাবারটা রান্না করে ফেলা। প্রায়ই রাতের বেলা এক বছরের নিনিতকে কোলে নিয়ে হেঁটে ঘুম পাড়াতেন, যাতে আমি একটু বিশ্রাম পাই। হাসপাতালে হুমায়ূনের বিছানার পাশে একরাত আমি জাগি তো আরেক রাত তিনি জাগেন। আমার মতো করেই হুমায়ূন আহমেদের পা টিপে তাকে ঘুম পাড়িয়ে দেন। রক্তের সম্পর্ক না থেকেও তিনি হুমায়ূন আহমেদের ছোট ভাই। আমি তাকে দেবরের মতো ভালোবাসি।

শাওন লিখেন, নিনিত, নিষাদ আর আমার ছোট্ট পরিবারটি ছাড়া তাদের পরিবারের কোনও উৎসবই পূর্ণ হয় না! তাদের সব আনন্দের ভাগ যেন আমাদের না দিলেই নয়। তাদের ছেলে দুটিও বড় ভাইয়ের মতোই আগলে রেখেছে আমার নিনিত-নিষাদকে। নিনিত আর আমি-আমরা তিনজনই তাদের পরিবারের সব্বাইকে অনেক ভালোবাসি।

সব শেষে অভিনেত্রী লিখেন, ‘প্রিয় মাজহার ভাই আপনার জন্মদিনে অনেক শুভকামনা। যে স্নেহ আর সম্মানে আপনি আমাদের জড়িয়ে রেখেছেন তা শতগুণ হয়ে আপনার পরিবারকে ঘিরে রাখুক।’

Print Friendly, PDF & Email