লক্ষ্মীপুরে চাচার দাঁত ভেঙ্গে দিল ভাতিজা!

নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলায় মো. আবুল কালাম (৩৮) নামে এক ব্যক্তির দাঁত ভেঙ্গে দিয়েছে তার ভাতিজা মো. রনি (২৪)। শনিবার (২৯ আগস্ট) সন্ধ্যায় উপজেলার দিঘলী ইউনিয়নের খাগুড়িয়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটে।

আহত আবুল কালাম উপজেলার খাগুড়িয়া গ্রামের মৃত. মো. হাসান মিয়ার ছেলে ও একজন নির্মাণ ঠিকাদার। তার বড় ভাই মো. সোহরাওয়ার্দীর ছেলে এ ঘটনায় অভিযুক্ত মো. রনি।

স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘ ১০ বছর ধরে পৈত্রিক সম্পত্তি বন্টন নিয়ে আবুল কালাম ও তার বড় ভাই সোহরাওয়ার্দীর মধ্যে দ্বন্দ্ব চলমান রয়েছে। এরই জের ধরে গত বুধবার আবুল কালামের স্কুল পড়ুয়া ছেলে নোমান আহমেদ অনিক (৮)-কে মারধর করে তার ভাতিজা মো. রনি। সামাজিকভাবে এ ঘটনার প্রতিবাদ ও বিচার চাওয়ায় আবুল কালামকে বিভিন্নভাবে হুমকি-ধমকি দেয় রনি। পরে শনিবার সন্ধ্যায় রনি ও তার সহযোগীরা আবুল কালামের ওপর অতর্কিত হামলা চালিয়ে তাকে এলোপাতাড়ি মারধর করে পালিয়ে যায়। এসময় তার একটি দাঁত ভেঙ্গে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়।

এদিকে ভুক্তভোগী আবুল কালাম বলেন, ‘আমাকে ও আমার শিশু সন্তানকে অন্যায়ভাবে মারধর করেছে আমার ভাতিজা রনি ও তার সহযোগীরা। রনি মাদকাসক্ত ও বখাটে ছেলে। ভয়ভীতি দেখিয়ে পৈত্রিক সম্পত্তি থেকে আমাকে বঞ্চিত করার পাঁয়তারা করছেন আমার বড় ভাই সোহরাওয়ার্দী। আমি ন্যায় বিচার চাই।’

অন্যদিকে এ বিষয়ে জানতে একাধিকবার যোগাযোগ করেও অভিযুক্ত রনি ও তার বাবা সোহওয়ার্দীর বক্তব্য পাওয়া যায় নি।

দাসেরহাট পুলিশ ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (পুলিশ পরিদর্শক) মো. মফিজ উদ্দিন জানান, ঘটনাটি শুনেছি। তবে এখনও কোনো লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

শীর্ষ সংবাদ/রাকিবআপ্র

Print Friendly, PDF & Email