পরপুরুষের সঙ্গে কথা বলায় ভারতে বিধবা নারীকে গণধর্ষণ

অপরিচিত পুরুষের সঙ্গে কথা বলায় আদিবাসী বিধবা নারীকে ধর্ষণ করলেন গ্রামেরই ৫ যুবক। অভিযোগ, রাতভর ধর্ষণের পর সকালে তাকে নিয়ে শালিসি সভা বসান গ্রামের মোড়ল। মোটা অঙ্কের টাকাও জরিমানা করা হয়। এ ঘটনায় শনিবার থানায় অভিযোগ করেন নির্যাতিতা।  অভিযুক্ত দুইজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের বীরভূমের মুহাম্মদবাজারের বোরবাঁধে। নির্যাতিতার দাবি, গত মঙ্গলবার এক যুবকের সঙ্গে কথা বলছিলেন তিনি। সেই অভিযোগে তাকে গ্রামের ক্লাবে তুলে নিয়ে যায় কয়েকজন যুবক। সেখানে তাকে অশ্লীলভাবে গালিগালাজ করা হয়।

রাত বাড়লে তাকে তুলে আনা হয় বাড়ির সামনে একটি জঙ্গলে। সেখানে তাকে দফায় দফায় ধর্ষণ করেন গ্রামের ৫ যুবক। অত্যাচারের জেরে জ্ঞান হারান নারী। ফের তাকে নিয়ে যাওয়া হয় ক্লাবে। সেখানে চোখে-মুখে পানি দিয়ে তার জ্ঞান ফেরানো হয়।

সকাল হলে গ্রামে শালিসি সভা বসান মোড়ল। সেখানে যে যুবকের সঙ্গে নারী কথা বলছিলেন তার কাছ থেকে ৫০,০০০ টাকা আদায় করা হয়। এর পর প্রায় নগ্ন অবস্থায় ওই নারীকে বাড়িতে ফেরত পাঠানো হয়।

ঘটনার তিন দিন পর শনিবার মুহাম্মদবাজার থানায় অভিযোগ করেন নির্যাতিতা। এরপর তৎপর হয় পুলিশ। অভিযোগের ভিত্তিতে দুই যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি তিনজনের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ।

বীরভূমের পুলিশ সুপার শ্যাম সিং জানান, কঠোর পদক্ষেপ করেছে পুলিশ। অভিযুক্তদের কেউ ছাড় পাবে না।

সূত্র : হিন্দুস্তান টাইমস

Print Friendly, PDF & Email