টানা ৯ ঘণ্টা, এমনকি মাস্ক পরেই ঘুমিয়েছিলেন ভাবনা

ঢাকা: করোনা মহামারীর কারণে স্বাস্থ্যবিধি অনুসারে বাড়ির বাইরে মাস্ক ব্যবহার করতে হচ্ছে সবাইকে। অভিনেত্রী আশনা হাবিব ভাবনা বাসার ভেতরেও মাস্ক পরে থাকছেন। এমনকি তিনি ঘুমিয়েছেনও মাস্ক পরে। টানা ৯ ঘণ্টায় মাস্কের দাগ পড়ে গিয়েছিল তাঁর মুখে। এভাবে করোনার সম্মুখযোদ্ধা চিকিৎসকদের যাতনা অনুভব করেছেন এই অভিনেত্রী।

স্বল্পদৈর্ঘ্য একটি চলচ্চিত্রের শুটিংয়ে অংশ নিয়েছেন ভাবনা। সেখানে একজন সংগ্রামী চিকিৎসকের ভূমিকায় অভিনয় করছেন তিনি। পরিচালকের নির্দেশনা মানতেই করোনাযোদ্ধা চিকিৎসকদের মতো মুখের ওপর মাস্ক, ফেসক্যাপ, চশমার দাগ ফেলতে হবে। সেই চেষ্টাই করেছেন ভাবনা। শুটিংয়ের আগের দিন থেকে বাসায় মাস্ক পরে আর সেটা খোলেননি। এই অভিনেত্রী বলেন, ‘ছবির গল্পটা হাতে পাওয়ার পর মন খারাপ হয়ে গিয়েছিল। ডাক্তারদের সংগ্রামটা যেন চোখের সামনে ভাসছিল। এটুকু বুঝতে চেয়েছিলাম, কি অমানুষিক কষ্টের মধ্যে দিয়ে তাঁদের যেতে হচ্ছে। এ রকম চরিত্রে ছাড় দেওয়া যায় না। তাই আগেই মাস্ক পরে মুখে দাগ বসিয়েছি। এ চরিত্র করতে গিয়ে ডাক্তারদের প্রতি আমার সম্মান ১০ গুণ বেড়ে গেছে।’

গত রোববার (৯ আগস্ট) ধানমন্ডিতে শুরু হয়েছে ‘মুখ আসমান’ নামের ওই স্বল্পদৈর্ঘ্যের শুটিং। এ সময়ে চরিত্রের মধ্যেই থাকতে চান ভাবনা। চরিত্রটিকে বিশ্বাসযোগ্য করে তুলতে রাতেও মাস্ক পরে ঘুমিয়েছেন তিনি। এমনকি বাসায় চরিত্রের পোশাক পরেই থাকার চেষ্টা করছেন।

‘মুখ আসমান’ স্বল্পদৈর্ঘ্যটির চিত্রনাট্য ও পরিচালনা অনিমেষ আইচের। এটি দেখা যাবে একটি ইউটিউব চ্যানেলে। পবিত্র ঈদুল আজহায় ভাবনা অভিনীত ‘টু-লেট’ নাটকটি বেশ প্রশংসিত হয়েছে। সেই গল্পে একজন বাক্‌প্রতিবন্ধীর চরিত্রে দেখা গেছে তাঁকে।’

Print Friendly, PDF & Email