লক্ষ্মীপুরে ৪ টি মেছো বাঘের বাচ্চা উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক :

লক্ষ্মীপুর জেলার চন্দ্রগঞ্জ থানাধীন কামারহাটের দক্ষিণে ধন্যপুর টাওয়ারের গোড়া নামকস্থান থেকে ৪টি মেছো বাঘের বাচ্চা উদ্ধার করা হয়। আজ (৩১ জুলাই) শুক্রবার লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ভারপ্রাপ্ত বন কর্মকর্তা চন্দন ভৌমিক বিষয়টি নিশ্চিত করে। এর আগে গত (২৫ জুলাই) শনিবার স্থানীয় ধন্যপুর গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আতিকুর রহমানের ছেলে মটর ম্যাকানিক মোঃ আনোয়ার হোসেন একদম ছোট ছোট ৪টি মেছো বাঘের বাচ্চা উদ্ধার করে লালন পালন আরম্ভ করে। পশু প্রেমিক মোঃ আনোয়ার হোসেন সাথে ২টি বাঘের ছানা।

জানা যায়, স্থানীয় জনগণ ধন্যপুর টাওয়ারের নিচে মেছো বাঘ এবং বাচ্চা দেখতে পায়। পরে তারা মা মেছো বাঘটিকে পিটিয়ে মেরে ফেলে এবং ছানা ৪টিকে ফেলে চলে যায়। পরবর্তীতে স্থানীয় চন্দ্রগঞ্জ বাজারের আফজাল রোড সংলগ্ন বিসমিল্লাহ ইলেকট্রিক ইঞ্জিনিয়ারিং ওয়ার্কসপ এর স্বত্তাধিকারী মোঃ আনোয়ার হোসেন বাচ্চা গুলো দেখতে পেয়ে নিজের দায়িত্বে নিয়ে যায়।

এবিষয়ে জানাতে চাইলে মোঃ আনোয়ার হোসেন জানান, আমি মেছো বাঘের বাচ্চা গুলো পাওয়ার পর ইউটিউবে টিউটোরিয়াল দেখি, কিভাবে বাঘের বাচ্চা লালন পালন করতে হয়। তারপর আমি বাচ্চা গুলোর জন্য আলোর ব্যবস্থা করি যাতে তারা উত্তাপ পায় এবং তাদেরকে নিয়মিত তরল দুধ খাওয়ানোর চেষ্টা করি। এখন তারা তরল দুধ একটু একটু করে খাচ্ছে।

খবর পেয়ে (৩০ জুলাই) বৃহস্প্রতিবার মেছো বাঘের বাচ্চা গুলোকে দেখতে আসেন, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ভারপ্রাপ্ত বন কর্মকর্তা চন্দন ভৌমিক। তিনি খবর পেয়ে আনোয়ারের ওয়ার্কসপে আসেন এবং মেছো বাঘের বাচ্চা গুলোকে দেখেন। বাচ্চা গুলো অনেক ছোট বিধায় পশু প্রেমিক মোঃ আনোয়ার হোসেন এর কাছে আপাতত মেছো বাঘের বাচ্চা গুলোকে রেখে যান। পরবর্তীতে যখন বাচ্চা গুলো বড় হবে তখন বন বিভাগ বাচ্চা গুলো নিয়ে যাবে।

তিনি আরো বলেন বিলুপ্ত প্রায় এই মেছো বাঘের বাচ্চা গুলোকে আশ্রয় দিয়ে লালন পালন করে মোঃ আনোয়ার হোসেন মানবতার উজ্জল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। আশাকরছি তিনি এর যোগ্য পুরস্কার পাবেন।

এদিকে বাঘের বাচ্চা পাওয়ার খবরে এলাকায় চাঞ্ছল্যকর পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। সাধারন মানুষ প্রতিনিয়ত বাঘের বাচ্চা গুলোকে দেখতে আনোয়ারের ওয়ার্কসপে ভিড় জমাচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email