লিবিয়া ইস্যুতে মিশরকে আবার হুঁশিয়ারি দিল তুরস্ক

মিশরকে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে তুরস্ক বলেছে, কায়রো যদি লিবিয়ায় সেনা মোতায়েনের পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যায় তাহলে তারা বিপজ্জনক ঝুঁকির মুখে পড়বে।

তুর্কি প্রেসিডেন্ট এরদোগানের নিরাপত্তা উপদেষ্টা ইব্রাহিম কালিন বুধবার বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেয়া সাক্ষাৎকারে এই হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

মিশরের জাতীয় সংসদ লিবিয়ায় সম্ভাব্য সামরিক হস্তক্ষেপের ব্যাপারে জেনারেল দেশটির প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আস-সিসিকে সবুজ সংকেত দেয়ার পর ইব্রাহিম কালিন ওই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

তিনি বলেন, আফ্রিকার তেলসমৃদ্ধ দেশ লিবিয়ায় যদি মিশর সেনা মোতায়েনের চেষ্টা করে তাহলে যুদ্ধবিধ্বস্ত লিবিয়ায় শান্তি প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টা ব্যাহত হবে এবং তা কায়রোর জন্য খুবই ঝুঁকিপূর্ণ হবে। তিনি বলেন, আমি বিশ্বাস করি এটি হবে মিশরের জন্য বিপজ্জনক সামরিক ঝুঁকি।

২০১১ সালে লিবিয়ায় মার্কিন নেতৃত্বাধীন ন্যাটো বাহিনীর সামরিক অভিযানে দেশটির নেতা মুয়াম্মার গাদ্দাফি নিহত হওয়ার পর থেকে লিবিয়া মারাত্মক গোলযোগের মধ্যে রয়েছে। এ অবস্থায় ত্রিপোলিভিত্তিক জাতীয় সরকারের পক্ষে অবস্থান নিয়েছে তুরস্ক। অন্যদিকে, বিদ্রোহী নেতা জেনারেল খলিফা হাফতারের পক্ষ নিয়েছে মিশর।

লিবিয়া ইস্যুতে বেশ কিছুদিন ধরে অনেকটা মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে মিশর ও তুরস্ক। মিশর এখন লিবিয়ায় সামরিক হস্তক্ষেপ করার কথা বলছে। এতে তুরস্ক ও মিশরের মধ্যে সামরিক সংঘাতের আশঙ্কা বেড়েছে।

Print Friendly, PDF & Email