স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করলেন তিউনিশিয়ার প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা : তিউনিশিয়ার প্রধানমন্ত্রী এলিস ফখফখ পদত্যাগ করেছেন। দেশটিতে চলমান রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব আর না বাড়ানোর লক্ষ্যে স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেছেন তিনি। বুধবার তিনি প্রেসিডেন্ট কাইস সাইদের কাছে পদত্যাপত্র জমা দেন।

তিউনিশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে স্থানীয় গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়। এ ছাড়া আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোর খবরেও এ তথ্য জানানো হয়।

এলিস ফখফখের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগে তদন্ত চলছে। এছাড়া দেশটির প্রভাবশালী রাজনৈতিক দল এন্নাহদা তার বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবও তুলেছে।

গত অক্টোবরের নির্বাচনে জয়লাভ করলেও সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় জোট সরকার গঠন করে এন্নাহদা। তারা স্বাধীনভাবে একজনকে প্রধানমন্ত্রী নির্ধারণ করলেও তিনি সংসদের সমর্থন লাভে ব্যর্থ হন। এভাবে টানা চার মাস নানা টানাপোড়েনের পর সাবেক অর্থমন্ত্রী এলিস ফখফখকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেন প্রেসিডেন্ট।

কিন্তু সম্প্রতি তিউনিশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে বেসরকারি কোম্পানিতে থাকা তার শেয়ার হস্তান্তরে ব্যর্থতার অভিযোগ ওঠে। ফখফখ ক্ষমতায় থাকতেই ওই কোম্পানিটি সরকারি কাজের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছিল।

তবে এ ক্ষেত্রে কোনো অনিয়ম করেননি বলে দাবি করেছেন এ নেতা। এরপরও রাজনৈতিক বিতর্ক এড়াতে তিনি পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানিয়েছে তিউনিশিয়ার গণমাধ্যম।

Print Friendly, PDF & Email