ময়ূর-২ লঞ্চের ইঞ্জিন চালক শাকিল-শিপন গ্রেফতার

ঢাকা : রাজধানীর শ্যামবাজারসংলগ্ন বুড়িগঙ্গা নদীতে ঢাকা-চাঁদপুর রুটের এমভি ময়ূর ২ লঞ্চটি ভুল চালানোর কারণে ধাক্কা লেগে এমএল মর্নিং বার্ড লঞ্চ ডুবে মারা যায় ৩৪ জন যাত্রী। ময়ূর-২ লঞ্চের চালকদের অসতর্কতা ও অবহেলার কারণেই ঘটে এ দুর্ঘটনা। গত ২৯ জুন সকালে এ দুর্ঘটনার জন্য ময়ূর-২ লঞ্চের চালকদের দায়ী করে প্রতিবেদন জমা দিয়েছে দুই তদন্ত কমিটি।

এ ছাড়া বুড়িগঙ্গায় লঞ্চ ডুবির ঘটনায় একের পর এক গ্রেফতার হচ্ছেন ময়ূর-২’র মালিক-চালকরা। এ ঘটনায় আরও ২ আসামিকে গ্রেফতার করেছে নৌ পুলিশ। তারা হলেন ময়ূর-২ লঞ্চের ইঞ্জিন চালক শাকিল ও শিপন।

বুধবার (১৫ জুলাই) সকালে সাড়ে ১০টায় রাজধানীর সূত্রাপুর এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। নৌ পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফরিদা পারভীন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে বুড়িগঙ্গায় লঞ্চ ডুবির ঘটনায় এক নম্বর আসামি ময়ূর-২ লঞ্চের মালিক মোসাদ্দেক হানিফ ছোয়াদকে গ্রেফতার করে নৌ পুলিশ। গ্রেফতার এড়াতে পুলিশি অভিযানের সময় নিজের বাসার বাথরুমের ফলস ছাদে লুকিয়ে ছিলেন তিনি। পরে অনেক খোঁজা-খুঁজির পর তাকে গ্রেফতার করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email