রায়পুরকে জনবান্ধব থানায় রুপান্তরিত করা হবে : ওসি আব্দুল জলিল

ফরহাদ হোসেন, লক্ষ্মীপুর :
থানা মানুষের সেবার কেন্দ্রস্থল। তাই অভিযোগ নিয়ে থানায় আসেন তারা। অভিযোগের ভিত্তিতে স্বচ্ছতা ও দ্রুততার সঙ্গে কাজটি করলে, আস্থা বাড়বে পুলিশের প্রতি। থানা রুপান্তরিত হবে জনবান্ধব হিসাবে। পূর্ণতা পাবে ‘পুলিশ জনগণের বন্ধু’ কথাটির। লক্ষ্মীপুরের রায়পুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল জলিল জেলার অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘শীর্ষ সংবাদ’র সৌজন্য সাক্ষাতকালে এ মন্তব্য করেন।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, শীর্ষ সংবাদ প্রতিবেদক ফরহাদ হোসেন, দৈনিক যুগান্তর ও শীর্ষ সংবাদ রায়পুর উপজেলা প্রতিনিধি তাবারক হোসেন আজাদ, রায়পুর প্রেসক্লাবের যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক সোহেল আলম।
নবাগত ওসি বলেন, মানুষ যাতে থানায় এসে নির্বিঘ্নে সেবা পেতে পারে, সেজন্য সকল পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে। অপরাধীর সঙ্গে কোন আপোষ করা হবে না। থানা হবে নিরপরাধ ব্যক্তির বন্ধু আর অপরাধীর জম। তাছাড়া মাদক, ইভটিজিং, চুরি-ডাকাতি, কিশোর গ্যাং ও অপ-সাংবাদিকদের কঠোর ভাবে দমন করা হবে। অপরাধের সাথে যদি কোন পুলিশ সদস্যও জড়িত থাকেন, তাহলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে। রায়পুর থানাকে সত্যিকার অর্থেই জনবান্ধব ও সেবা প্রত্যাশীদের কেন্দ্রস্থলে রুপান্তরিত করা হবে।
আব্দুল জলিল বলেন, রায়পুরের মানুষ অত্যন্ত সহজ-সরল ও আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। পুলিশ সদস্যরাও তাদের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রেখে এলাকার সার্বিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখবেন। করোনায় বিভিন্ন কার্যক্রমে পুলিশের প্রতি মানুষের যে আস্থা বৃদ্ধি পেয়েছে, সেটি অব্যহত রাখা হবে।
এছাড়াও তিনি বলেন, পূর্বে যেভাবে সুনামের সঙ্গে সাব-ইনস্পেক্টর হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছেন, একইভাবে ওসি হিসাবেও এই থানায় দায়িত্ব পালন করবেন।
Print Friendly, PDF & Email