লক্ষ্মীপুরে স্বাস্থবিধি না মেনে ছাত্রলীগের আনন্দ ভ্রমণ : করোনা ঝুঁকির আশঙ্কা

নিজস্ব প্রতিবেদক :

প্রাণঘাতী করোনায় আনন্দ ভ্রমণ করেছেন লক্ষ্মীপুরের রায়পুর পৌর ছাত্রলীগ। শনিবার (৪ জুলাই) উপজেলার মেঘনা নদীতে অর্ধ্বশতাধিক কর্মী নিয়ে নৌকা ভ্রমণ করেন তারা। স্বাস্থবিধি ও সামাজিক দূরত্ব না মানায় করোনা ঝুঁকির আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, রায়পুর পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মাহবুবুর রহমান রিজভী, পৌর ছাত্রলীগ নেতা তানভীর আহমেদ পাটোয়ারী, ফরহাদ নওয়েল, জাবেদ, রায়পুর পৌর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মো: হোসেন, জামাল পাটোয়ারী সহ অর্ধ্বশতাধিক নেতাকের্মী।

জানা গেছে, শনিবার দুপুরের পর থেকেই রায়পুর থানা সম্মুখে পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে আসা নেতাকর্মীরা জড়ো হতে থাকে। পরে বিকালে মোটরসাইকেল নিয়ে উপজেলার মেঘনা নদী এলাকায় যায় তারা। প্রত্যেকটি মোটরসাইকেলে ২ থেকে ৩ জন নেতাকের্মী ছিলেন। পরে নৌকা নিয়ে নদী ভ্রমণ করেন। সেখানে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব কোনটিই মানা হয়নি।

নাম প্রকাশ না করা শর্তে উপজেলা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী বলেন, করোনা ঝুঁকি এড়াতে স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলাচলের কথা বলা হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে। তাছাড়া কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগও বলেছেন, নিজে সচেতন থেকে সাধারণ জনগনকে সচেতন করতে। কিন্তু রায়পুর পৌর ছাত্রলীগ সেটি উপেক্ষা করে আনন্দ ভ্রমণে করছেন। দেশের এই ক্লান্তিলগ্নে উল্লাসে মেতে উঠেছেন তারা।

স্থানীয়রা বলছেন, প্রতিদিনই বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। যদিও স্থানীয় প্রশাসন লকডাউন তুলে নিয়েছে গত ৩০ জুন। তবুও সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে ও সচেতন করতে কাজ করে যাচ্ছেন প্রশাসন। করোনা একটি ছোঁয়াছে রোগ, অথচ সামাজিক দূরত্বের তোয়াক্কা না করে নৌকা ভ্রমণ করছেন।

এ বিষয়ে রায়পুর পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি মাহবুবুর রহমান রিজভী বলেন, আমরা ছোট মানুষ বিষয়টি বুঝতে পারিনি। ভবিষ্যতে এমন ভুল হবে না।

রায়পুর পৌর যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক মো: হোসেন বলেন, অভ্যন্তরীণ কোন্দলকে কেন্দ্র করে সাংবাদিকদের ভুল তথ্য দেওয়া হয়েছে।

জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন শরীফ বলেন, আনন্দ ভ্রমণের বিষয়টি তিনি জানেন না। তবে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাচল বা ভ্রমণ করা দোষের কিছু নয়।

Print Friendly, PDF & Email