কোচও সৌরভকে ক্যাপ্টেন্সি থেকে সরাতে চেয়েছিলেন

গ্রেগ চ্যাপেলকে টিম ইন্ডিয়ার কোচ নিযুক্ত করার পিছনে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের উল্লেখযোগ্য ভূমিকা ছিল। দায়িত্ব নেওয়ার পর গুরু গ্রেগ সৌরভকেই তাঁর পথের কাঁটা হিসেবে চিহ্নিত করেছিলেন। দলের একছত্র ক্ষমতা পেতে সৌরভকে সরিয়ে দেওয়াই ছিল চ্যাপেলের প্রধান লক্ষ্য।তবে একা গ্রেগ চ্যাপেলই নন, আরও এক অজি কোচ চেয়েছিলেন সৌরভকে নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হোক। তবে জাতীয় দলের নয়। আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজি কলকাতা নাইট রাইডার্সের ক্যাপ্টেন্সি থেকে মহারাজকে ছেঁটে ফেলতে চেয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় দলের প্রাক্তন কোচ জন বুকানন, যিনি শুরুর দিকে কেকেআরের প্রশিক্ষকের চেয়ারে ছিলেন।

উদ্বোধনী মরশুমে নাইট রাইডার্সের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করা ভারতের প্রাক্তন তারকা আকাশ চোপড়া এমনটাই দাবি করেন। চোপড়া জানান, শুরুর দিকে কোচ বুকাননের সঙ্গে ক্যাপ্টেন সৌরভের সম্পর্ক ভালো ছিল। তবে পরের দিকে দু’জনের ক্রিকেট দর্শন ভিন্ন হওয়ায় সমস্যা দেখা দেয়। বুকাননের জন্যই আইপিএলের দ্বিতীয় মরশুমে নেতৃত্ব খোয়াতে হয় সৌরভকে।চোপড়া বলেন, ‘প্রথম আইপিএলে দলে বুকানন ছিল, রিকি পন্টিংও ছিল। সৌরভ ছিল ক্যাপ্টেন। খুব কাছ থেকে দেখেছি যে, শুরুতে ওদের সম্পর্ক ভালো ছিল। শুরুটা ছিল সত্যিই দারুণ। তবে পরে সেটা খারাপ হতে থাকে। বুকাননের কাজ করার ধরণ ছিল আলাদা। সৌরভের মেজাজ ছিল ভিন্ন। শেষে সৌরভকে ক্যাপ্টেন্সি থেকে সরিয়ে দিতে চেয়েছিল বুকানন, যেটা পরের মরশুমে হয়েও ছিল। কারণ প্রথম মরশুমে কেকেআর ৬ নম্বরে শেষ করে। যদিও সৌরভ যখন ক্যাপ্টেন ছিল না, তখন কেকেআর ৮ নম্বরে শেষ করে।’দ্বিতীয় মরশুমে জন বুকানন একাধিক ক্যাপ্টেন প্রথা চালুর চেষ্টা করেন দলে, যেটা মেনে নিতে পারেননি সৌরভ। ফলে সেবার সৌরভকে সরিয়ে ক্যাপ্টেন করা হয় ব্রেন্ডন ম্যাকালামকে। কিউয়ি তারকার নেতৃত্বে দল চূড়ান্ত ব্যর্থ হওয়ায় বুকাননকে কোচের পদ থেকে সরতে হয় এবং পুনরায় সৌরভকে নেতৃত্বে ফেরায় নাইট রাইডার্স।

Print Friendly, PDF & Email