করোনায় মারা যাওয়া ৫৩ জনের কার কত বয়স

বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রেকর্ড সংখ্যক ৫৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। একদিনের হিসেবে এটি সর্বোচ্চ মৃত্যু। এ নিয়ে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ১ হাজার ২৬২ জনে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত হেলথ বুলেটিনে এ তথ্য জানানো হয়। অনলাইনে বুলেটিন উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

অনলাইন বুলেটিনে বলা হয়, মৃত ৫৩ জনের মধ্যে ৪৭ জন পুরুষ ও ৬ জন নারী। বয়সভিত্তিক বিশ্লেষণে দেখা যায় ১১-২০ বছরের মধ্যে ১ জন, ২১-৩০ বছরের মধ্যে ৩ জন, ৩১-৪০ বছরের মধ্যে ২ জন, ৪১-৫০ বছরের মধ্যে ৯ জন, ৫১-৬০ বছরের মধ্যে ১৯ জন, ৬১-৭০ বছরের মধ্যে ১০ জন, ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ৮ জন এবং ৭১-৮০ বছরের মধ্যে ১ জন মারা গেছেন। এরমধ্যে হাসপাতালে ৩৪ জন এবং বাড়িতে ১৮ জন মারা গেছেন। এছাড়া, মৃত অবস্থায় হাসপাতালে এসেছেন ১ জন।

বুলেটিনে আরো বলা হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭ হাজার ২১৪টি নমুনা পরীক্ষায় সর্বোচ্চ ৩ হাজার ৮৬২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। একদিনের হিসেবে এটিও সর্বোচ্চ শনাক্ত। এনিয়ে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৯৪ হাজার ৪৮১ জনে।

ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ২ হাজার ২৩৭ জন। এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৩৪ হাজার ২৬৪ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৩৮.৩৮ শতাংশ।

আপনার সুরক্ষা আপনার হাতে উল্লেখ করে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সকলকে স্বাস্থ্যবিধি যথাযথভাবে মেনে চলতে সকলের প্রতি আহবান জানানো হয়।

দেশে নভেল করোনাভাইরাসে (কভিড-১৯) সংক্রমিত প্রথম রোগী শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। আর ১৮ মার্চ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

Print Friendly, PDF & Email