মিয়ানমার নয়, বাংলাদেশকেই রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বলবে মালয়েশিয়া!

মালয়েশিয়ায় প্রবেশের সময় দু’শ ৭০ জন রোহিঙ্গা বোঝাই একটি নৌকা আটক করেছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। আটক রোহিঙ্গাদের সেদেশে জায়গা দিতে নারাজ মালয়েশিয়ার সরকার। তবে রোহিঙ্গাদের নিজ দেশ মিয়ানমারে না পাঠিয়ে বাংলাদেশে পাঠাতে চান দেশটির প্রতিরক্ষামন্ত্রী ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব। তিনি জানিয়েছেন, বাংলাদেশকে এসব রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে বলা হবে। মঙ্গলবার তিনি এসব কথা জানান।

ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব মঙ্গলবার সাংবাদিকদের বলেন, রোহিঙ্গাদের জানা উচিত, তারা এখানে (মালয়েশিয়া) আসলেও থাকতে পারবে না।’ তিনি জানান, যদি জানা যায় আটক হওয়া অভিবাসীরা বাংলাদেশের কক্সবাজারের আশ্রয় শিবির থেকে পালিয়ে থাকে তাহলে তাদের ফিরিয়ে নিতে ঢাকাকে অনুরোধ জানাবে মালয়েশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

এর আগে গত সোমবার মালয়েশিয়ার লঙ্কাউই দ্বীপের একটি নৌকা থেকে ২৬৯ জন রোহিঙ্গাকে আটক করা হয়। সেই সঙ্গে এক নারীর মৃতদেহও উদ্ধার করা হয়। ইসমাইল সাবরি বলেন, আটক করা এসব রোহিঙ্গাদের ভাসান চরে পাঠাতে বাংলাদেশকে অনুরোধ করবে মালয়েশিয়া। এছাড়া রোহিঙ্গাদের তৃতীয় কোনো দেশে আশ্রয় দিতে জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআরকে বলা হবে বলেও জানান তিনি।

তবে ঢাকার পক্ষ থেকে আটক রোহিঙ্গাদের দায়িত্ব নেওয়া হবে না বলে জানানো হয়েছে। বাংলাদেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেছেন, রোহিঙ্গাদের দায় মিয়ানমারের। তারা কেন মিয়ানমারকেই ফিরিয়ে নিতে বলছে না? তারা যেখানে পৌঁছে গেছে সেই দেশের দায়িত্ব। বাংলাদেশের কিছুই করার নেই।

এই বিষয়ে জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা ইউএনএইচসিআর কোনো ধরনের মন্তব্য করেনি।

সূত্র: রয়টার্স।

Print Friendly, PDF & Email