লক্ষ্মীপুরে শিশু অসুস্থ্যের ঘটনায় নাটকীয় মামলায় প্রবাসীর স্ত্রীকে ফাঁসানোর অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক:
লক্ষ্মীপুরে দেড় বছর বয়সী শিশুর শরীরে বিষাক্ত ইনজেকসন পুশে অসুস্থ্য হয়ার ঘটনায় এক প্রবাসীর স্ত্রীকে মামলায় ফাঁসানোর প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। এসময় ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও গ্রেফতারকৃত প্রবাসীর স্ত্রী খুকি বেগমের মুক্তি দাবী করা হয়।
বৃহস্পতিবার (৪ জুন) দুপুরে সদর উপজেলার হাজী জিন্নাত আলী মুন্সী বাড়ীতে এ দাবী জানান ভূক্তভোগীর পরিবারের লোকজন। ভুক্তভোগী খুকি বেগম একই বাড়ির সৌদি আরব প্রবাসী আবুল কাশেমের স্ত্রী।

সংবাদ সম্মেলনে খুকি বেগমের মেয়ে মায়েশা আক্তার মর্জিনা জানান, অসুস্থ্য শিশু হাবিবের মা শামছুন্নাহার সামু তাদের একই বাড়ির প্রতিবেশী। উভয়ের মধ্যে কোন বিরোধ নেই। প্রতিবেশি হিসেবে সবাই মিলমিশ ছিলো। ঘটনার দিন শিশুটি কিসে আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ্য হয়েছে। সেটা না দেখেই কয়েকদিন পর ইনজেকশনের নাটক জানিয়ে ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে একটি চক্র শিশুটির দাঁদা লাতু মিয়াকে প্রভাবিত করে মিথ্যা মামলা দিয়ে আমার মাকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠায়।

অথচ এ ঘটনার সাথে আমার মা কিংবা পরিবারের কেউই জড়িত নয়। ঘটনার পর থেকে প্রতিনিয়তই বাড়িঘরে এসে হামলা ও হত্যার হুমকি সহ বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করছে ষড়যন্ত্রকারী চক্রের সদস্য মনির ও তার লোকজন। সে স্থানীয় আটিয়া বাড়ি এলাকার বাসিন্দা। এঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে মিথ্যা ষড়যন্ত্রমূলক মামলা প্রত্যাহার ও ভুক্তভোগী খুকি বেগমের মুক্তি দাবী করেন তিনি। একই সাথে ঘটনার সঠিক তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থাগ্রহনের জন্য প্রশাসনের কাছে দাবী জানান।

এসময় খুকি বেগমের ৮ম শ্রেণী পড়ুয়া শিশু ছেলে রাহাত বলেন, আমার মা শিশু হাবিবকে আদর করতো। এমন জগন্যতম কাজ করেন নি। স্থানীয় আটিয়া বাড়ি এলাকার মনির ষড়যন্ত্রমূলক আমার মাকে ফাঁসিয়েছেন। এছাড়াও তারা আমার স্কুল যাওয়ার সাইকেলটির টায়ার দুটো কেটে দিয়ে বিভিন্ন ভাবে হয়রনি করছেন। মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারসহ মায়ের মুক্তি দাবী করেন শিশু রাহাত। এতে উপস্থিত ছিলেন, খুকি ভাই আবুল কাশেম, মেয়ের জামাতা ফিরোজ মিয়াজীসহ অন্যরা।

প্রসঙ্গত, গত ১১ মে বিকেলে পার্বতীনগর গ্রামের ওই বাড়িতে বিষাক্ত ইনজেকশন পুশে হাবিব নামে দেড় বছর বয়সী একটি শিশু অসুস্থ্য হয়ে পড়ে। পরে তাকে প্রথমে সদর হাসপাতাল ও পরে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। বর্তমানে শিশুটি সেখানেই চিকিৎসাধীন আছে। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশী প্রবাসীর স্ত্রী খুকি বেগমকে সন্দেহের বশত মামলায় জড়িয়ে গ্রেফতার করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email