নদী কৃপন হয়ে গেছে! : লক্ষ্মীপুরে জেলেদের আক্ষেপ

নিজস্ব প্রতিবেদক : 

অন্যসময় নিষেধাজ্ঞা পরবর্তীতে নদীতে ঝাকে ঝাকে ইলিশ ধরা পড়তো। এবার মেঘনায় বারবার জাল ফেললেও মিলছেনা কাঙ্খিত ইলিশ। স্ত্রী, সন্তানদের নিয়ে কষ্টে দিনানিপাত করতে হচ্ছে।

অপরদিকে মেঘনায় পানি ভরপুর। উচ্চতা বৃদ্ধি পাওয়ায় লোকালয়েও প্রবেশ করছে। নষ্ট করছে ঘরবাড়িসহ ফসলের জমি। সবমিলে খুব কষ্টে আছি রে ভাই।

কথাগুলো বলেছেন, লক্ষ্মীপুরের মতিরহাট মাছঘাট এলাকার জেলে বেল্লাল মিয়া। আক্ষেপ করে তিনি বলেন, নদী কৃপন হয়ে গেছে! তাইতো ভরা মেঘনায় শুন্য ইলিশ।

জানা গেছে, চাঁদপুরের ষাটনল থেকে লক্ষ্মীপুরের রামগতির আলেকজান্ডার পর্যন্ত নদী তীরবর্তী অঞ্চলে প্রায় ৬২ হাজার জেলের বসবাস। তবে সরকারি তথ্য মতে সে সংখ্যাটি ৫২ হাজার। প্রতিটি নিষেধাজ্ঞায় এ জেলার ২০ হাজারের অধিক জেলেকে সরকারিভাবে সহায়তা করা হয়। তবে কার্ড থাকা সত্ত্বেও অধিকাংশ জেলে বঞ্চিত হয় সে সহায়তা থেকে। এখন অভিযান না থাকায়, জেলেরা প্রতিদিনই যাচ্ছেন নদীতে। কিন্তু লক্ষ্মীপুরের মেঘনায় বিভিন্ন স্থানে ডুবোচর থাকায় প্রত্যাশিত ইলিশ পাচ্ছে না জেলেরা।

মজুচৌধুরীর হাট এলাকার জেলে মো. কামাল হোসেন বলেন, ১ মে থেকে করোনা ঝুঁকি নিয়ে মাছ শিকারে নদীতে গিয়েছেন। কিন্তু মেঘনার কৃপনতায় তেমন ইলিশের দেখা মিলছে না। এতে দিশেহারা তারা। ঋনের টাকা তাদের জন্য বিষফোঁড়া হয়ে উঠেছে। রয়েছে আড়ৎদার ও দেনাদারদের চাপ।

অন্য এক জেলে বলেন, বিভিন্নস্থানে ডুবোচর থাকায় এখানকার মেঘনায় সাগর থেকে মাছ আসে না। তাইতো কাঙ্খিত ইলিশ পাওয়া যাচ্ছে না। অথচ অন্যান্যবছর এসময় জেলেরা নদী থেকে ঝুড়ি ভর্তি মাছ নিয়ে ঘাটে ফিরতেন। আড়তে মাছ রাখা মাত্রই শুরু হতো হাঁক-ডাক। বেচা-কেনায় সরগরম থাকত নদী তীরবর্তী ঘাট ও বাজারগুলো।

মতিরহাট মাছঘাটের আড়ৎদার মনির হোসেন বলেন, এখনো প্রত্যাশিত পরিমাণে ইলিশ ধরা পড়ছে না। যার কারণে দামও এখনো কমেনি। বড় ইলিশ প্রতি কেজি ১ হাজার থেকে ১৩’শ টাকা। মাঝারি সাইজের ৬’ শ থেকে ৯’শ ও ছোট ইলিশ প্রতি কেজি ৩’শ থেকে ৪৫০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হচ্ছে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. বিল্লাল হোসেন বলেন, ডুবোচর নয়, নদীতে পানি বেশি হওয়ায় জেলেরা প্রত্যাশিত ইলিশ পাচ্ছে না। তবে নিরবিচ্ছিন্নভাবে বৃষ্টি ও নদীর পানির উচ্চতা কমে গেলে, আষাঢ়’র প্রথম সপ্তাহ থেকে প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

Print Friendly, PDF & Email