লক্ষ্মীপুরে দুই পুলিশ সদস্যের পরিবারকে অর্থ সহায়তা দিলেন এসপি

নিজস্ব প্রতিবেদক :  

করোনা যুদ্ধে জীবন উৎসর্গকারী পুলিশের দুই সদস্যের পরিবারকে অর্থ প্রদান করা হয়েছে। বুধবার দুপুরে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে ডিএমপি কমিশনার মোহাঃ শফিকুল ইসলামের পক্ষ থেকে এই অনুদান দেয়া হয়। ঢাকায় কর্মরত অবস্থায় মৃত পুলিশের এএসআই শ্রী রঘুনাথ রায় ও নায়েক মামুনুর রশীদের পরিবারকে ৪ লাখ টাকা অনুদান দেয়া হয়েছে।

লক্ষ্মীপুর জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে তাদের পরিবারের কাছে অনুদানের চেক প্রদান করেন পুলিশ সুপার ড. এ এইচ এম কামরুজ্জামান।

সম্প্রতি কারোনাভাইসে আক্রান্ত হয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পাবলিক অর্ডার ম্যানেজমেন্ট (পিওএম-দক্ষিণ) বিভাগের আলফা কোম্পানিতে এএসআই শ্রী রঘুনাথ রায় ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের পরিবহন বিভাগে নায়েক মামুনুর রশীদ কর্মরত অবস্থায় মারা যান। এএসআই শ্রী রঘুনাথ রায়ের গ্রামের বাড়ি সদর উপজেলার কাফিলাতলি গ্রামে এবং নায়েক মামুনুর রশীদের গ্রামের বাড়ি লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলায়।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাঠ পর্যায়ের সম্মুখযোদ্ধা বাংলাদেশ পুলিশের আত্মোৎসর্গকারী লক্ষ্মীপুরের এই দুই বীর সদস্যকে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিজ নিজ গ্রামের বাড়িতে দাফন করা হয়।

পুলিশ সুপার ড. এ এইচ এম কামরুজ্জামান বলেন, দেশমাতৃকার সেবায় তাঁদের এমন আত্মত্যাগে বাংলাদেশ পুলিশ গর্বিত। করোনাভাইরাসে মৃত এই দুই পুলিশ সদস্যদের পরিবারের পাশে থাকবে লক্ষ্মীপুর জেলা পুলিশ। তাঁদের হারানোর শোককে শক্তিতে পরিণত করে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ পুলিশ।

এদিকে এর আগে গত ৩০ মে বাংলাদেশ পুলিশের আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদের থাকে প্রাপ্ত দশ লাখ টাকার চেক ও ঈদ উপহার সামগ্রী এবং ওয়ালটন এর সৌজন্যে দুই লাখ টাকার চেক এএসআই শ্রী রঘুনাথ রায় ও নায়েক মামুনুর রশীদের পরিবারকে প্রদান করা হয়।

Print Friendly, PDF & Email