করোনার দ্বিতীয় দফা বিস্তারের আশঙ্কায় সিউলে বার ও ক্লাব বন্ধ ঘোষণা

দ্বিতীয় দফায় ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কায় সিউল কর্তৃপক্ষ সব বার ও ক্লাব বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে। এদিকে দেশটির প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইন জনগণের প্রতি সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন।

করোনা মোকাবেলায় দক্ষিণ কোরিয়া বিশ্বে ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হলেও নাইট ক্লাব ও বারের জন্যে বিখ্যাত ইটাওনে নতুন করে করোনা সংক্রমণ দেখা দেয়ায় সিউলের মেয়র শনিবার নতুন এই নির্দেশনা জারি করেন।গত সপ্তাহান্তে ইটাওনে পাঁচটি ক্লাব ও বারে সময় কাটানোর পর ২৯ বছর বয়সী এক ব্যক্তির শরীরে করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়।স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ আবারো সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশংকা করে বলেছে, প্রায় ৭ হাজার ২০০ লোক এসব বার ও ক্লাবে গিয়েছে।সিউলের মেয়র পার্ক ওন সুন বলেছেন, অবহেলার কারণে সংক্রমণ তীব্রভাবে ছড়িয়ে পড়তে পারে।কোরিয়া সেন্টার্স ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন থেকে বলা হয়েছে, শনিবার নতুন করে যে ১৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে তার ১৭ জনই ইটাওনের।গত বুধবার দেশটি সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার কঠোরতা শিথিল করেছে। এ ছাড়া তারা ধীরে ধীরে স্বাভাবিক জীবন শুরুরও উদ্যোগ নিয়েছে।ক্ষমতা গ্রহণের তৃতীয় বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে দেয়া ভাষণে প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইন বলেন, নতুন সংক্রমণের কারণে আমাদেরকে পরিস্থিতি যে কোন সময়ে আগের মতো হয়ে যাওয়ার বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে।তিনি বলেন, শেষ পর্যন্তই আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। মহামারি প্রতিরোধে আমাদের সতর্কতার মাত্রা কখনই কমানো যাবে না।উল্লেখ্য, দেশটিতে রোববার নতুন করে ৩৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। গত এক মাসে এটি সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যা। এ নিয়ে দক্ষিণ কোরিয়ায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১০ হাজার ৮৭৪ জনে দাঁড়িয়েছে ।

Print Friendly, PDF & Email