লক্ষ্মীপুরে জাল এনআইডি, জন্মসনদ ও জেলেকার্ড তৈরী : আটক ২

নিজস্ব প্রতিবেদক :

লক্ষ্মীপুরের কমলনগরে জেলেকার্ড, এনআইডি ও জন্মসনদ জাল করার দায়ে ২ জনকে আটক করা হয় এবং ৪টি কম্পিউটার ও বিভিন্ন জাল আইডি জব্দ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেলে হাজিরহাট বাজারে এ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্যট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ মোবারক হোসেন।

আটককৃতরা হলেন, শিমুল ষ্টুডিও’র মালিক শিমুল মজুমদার ও সুধেব মজুমদার। রূপনগর ষ্টুডিও’র মালিক উপস্থিত ছিলেন না।

শিমুল মজুমদার, সুধেব মজুমদার চর জাঙ্গালিয়া গ্রামের বিজুস মজুমদারের ছেলে ও শিমুল ষ্টুডিওর মালিক। মো. রুবেল একই ইউনিয়নের আবুল কাশেমের ছেলে ও রুপনগর ষ্টুডিও’র মালিক।

হাজিরহাট বাজারের শিমুল ষ্টুডিও’র ২টি দোকান ও রূপনগর ষ্টুডিও’র ২টি দোকানে অভিযান পরিচালনার সময় জেলেকার্ড, এনআইডি ও জন্মসনদ জাল করার প্রমান পাওয়ায় ৪টি দোকানের কম্পিউটার জব্দ করা হয়। আটক ২ জন, জব্দকৃত কম্পিউটার ও বিভিন্ন প্রমানপত্র থানা হাজতে প্রেরন করেন।

উপজেলা নির্বাহী কার্যালয় সুত্রে জানাযায় যে, সেলিম নামে একজন ভুয়া জেলে কার্ড তৈরী করে হাজিরহাট ইউনিয়নে জেলে কার্ডের চালের জন্য গেলে তা ভুয়া প্রমানীত হয়। বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে জানালে তিনি এ ভ্রাম্যমান অভিযান পরিচালনা করেন।

সেলিম জানান, জেলে কার্ডটি হাজিরহাট বাজারের ১টি ষ্টুডিও থেকে তৈরি করেন।

হাজিরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যন মো. নিজাম উদ্দিন জানান, সেলিম ভুয়া কার্ড তৈরী করে জাল নেওয়ার চেষ্টা করলে আমার যাচাই করে দেখি তা ভুয়া জেলে কার্ড।
কমলনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. নুরুল আবছার জানান, নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্যট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোবারক হোসেন ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে ২জনকে আটক করে এবং মালামাল জব্দ করে থানায় প্রেরন করেন। এজাহার দিলে তা মামলা হিসেবে নেওয়া হবে।

নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্যট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মোবারক হোসেন বলেন, ৪টি ষ্টুডিওতে অভিযান পরিচালনা করে জেলেকার্ড, এনআইডি ও জন্মসনদ জাল তৈরীর প্রমান পেয়ে মালামাল জব্দ করি এবং প্রমাণের ভিত্তিতে মামলা নেওয়ার জন্য কমলনগর থানার অফিসার ইনচার্জকে অনুরোধ করেন।

ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় উপস্থিত ছিলেন, হাজিরহাট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নিজাম উদ্দিন,সাংবাদিক ও ব্যবসায়ীবৃন্দ।

Print Friendly, PDF & Email