সরকার চাচ্ছে দেশে একজনও যেন অনাহারে না থাকে

করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট সংকটময় পরিস্থিতি একজন মানুষও যাতে অনহারে না থাকে, সে লক্ষ্য নিয়ে সরকার কাজ করে যাচ্ছে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। রোববার (২৬ এপ্রিল) দুপুরে সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের নিজ দপ্তরে সীমিত পরিসরে অফিস খোলার প্রথম দিন অনলাইনে গণমাধ্যমে দেয়া বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, সরকার চেষ্টা করে যাচ্ছে যাতে এ বিশেষ পরিস্থিতিতে যারা দিন এনে দিন খায়, যারা দরিদ্র, তাদের অসুবিধা না হয়। সরকারের পাশাপশি বিত্তবান, দয়ালু এবং সমাজসেবীরাও এগিয়ে এসেছে।

আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দও সারাদেশে দরিদ্র মানুষের সহায়তায় এগিয়ে এসেছে জানিয়ে দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় এ দুর্যোগ মোকাবিলা করতে হবে। আমাদের লক্ষ্য একজন মানুষও যেন অনাহারে না থাকে, সেই লক্ষ্যেই সরকার কাজ করে যাচ্ছে।’

সরকারের নেয়া বিভিন্ন কর্মসূচির আওতায় এ তৃতীয়াংশের বেশি মানুষ রয়েছে এবং সহায়তা পাচ্ছে বলেও জানান তথ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘সরকার ভিজিডির মাধ্যমে ১০ লাখ ৪০ হাজার পরিবারকে সহায়তা দিচ্ছে। খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির মাধ্যমে ৫০ লাখ পরিবারের কাছে ১০ টাকা মূল্যে চাল বিতরণ করছে এবং সাড়ে ১২ লাখ পরিবার ওএমএসের মাধ্যমে সহায়তা পাচ্ছে।

করোনা পরিস্থিতিতে ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে শনিবার পর্যন্ত ১ লাখ ১৫ হাজার মেট্রিক টন চাল, ৪৯ কোটি টাকা ও শিশুখাদ্যের জন্য বিশেষ নগদ অর্থ ১১ কোটি ১০ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে বলেও জানান ড. হাছান মাহমুদ।

এসময় তথ্যসচিব কামরুন নাহার, প্রধান তথ্য অফিসার সুরথ কুমার সরকারসহ মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সূত্র : ইউএনবি

Print Friendly, PDF & Email