লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালের চিকিৎসক-নার্সসহ ২০ জন করোনা ঝুঁকিতে

নিজস্ব প্রতবিদেক:

লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালের সাধারণ ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন এক রোগীর করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ ঘটনায় ওই রোগী সংস্পর্শে আসা দুইজন চিকিৎসকসহ নার্স, কর্মচারী ও রোগীসহ ২০ জন করোনা ঝুঁকিতে রয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। হাসপাতালের দ্বিতীয় তলা (পুরুষ ওয়ার্ড) সাময়িক ভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে।

সোমবার (২০ এপ্রিল) বিকেলে এ তথ্য নিশ্চিত করেন সিভিল সার্জন ডা. আব্দুল গাফ্ফার।

সিভিল সার্জন জানান, তিন দিন পূর্বে গলা ব্যথা নিয়ে এক ব্যক্তি সদর হাসপাতালের (দ্বিতীয় তলা) সাধারণ পুরুষ ওয়ার্ডে ভর্তি হন। ওই ওয়ার্ডে অন্য রোগীও ছিলো। সন্দেহ হলে ওই রোগীর নমুনা সংগ্রহ করে বিআইটিআইডি এ পাঠানো হয়। রবিবার রাত ১০টার দিকে তার নমনুা পজেটিভ পাওয়া যায়। এতে ওয়ার্ডের সকল কার্যক্রম স্থগিত রেখে রোগীদের অন্যত্র সরিয়ে নেওয়া হয়।

তাছাড়া আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আশা দুজন চিকিৎসক, নাস, কর্মচারী ও রোগীসহ ২০জনকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। তবে বন্ধ করা পুরুষ ওয়ার্ডের ফ্লোর পূর্ণাঙ্গভাবে জীবাণুনাশক ছিটিয়ে জীবানুমুক্ত করে পুরায় খুলে দেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, সোমবার (২০এপ্রিল) বিকাল পর্যন্ত লক্ষ্মীপুর জেলায় নতুন করে চার জনসহ মোট ২৬ জন রোগীকে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত করেছে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

Print Friendly, PDF & Email