শেষ রোগীর বিদায়, বন্ধ হলো উহানের সেই হাসপাতাল

চীনের উহানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দিতে জরুরি ভিত্তিতে নির্মিত লেইশেনশান হাসপাতালটি খালি হয়ে গেছে। আর কোনো আক্রান্ত রোগী নেই সেখানে। আগামীকাল বুধবার থেকে বন্ধ করে দেওয়া হবে হাসপাতালটি।

সর্বশেষ চারজন রোগী ছিল লেইশেনশান হাসপাতালে। তাদের উহান ইউনিভার্সিটির ঝোংনান হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে হুবেই প্রদেশের উহানে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা নেমে এসেছে শূন্যের কোটায়।

লেইশেনশান হাসপাতালের প্রেসিডেন্ট ওয়াং জিংহুয়ান বলেন, ‘হাসপাতালটি ভেঙে ফেলা হবে না। যেকোনো দুর্যোগের জন্য এটি স্ট্যান্ডবাই থাকবে। আমরা সবাই মিলে করোনার বিরুদ্ধে লড়েছি, এটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। হাসপাতালে রোগী শূন্যের কোটায় নেমে এসেছে। এটি খুবই ভালো কাজে লেগেছে।’

ওয়াং জানান, হাসপাতালে ২ হাজার ১১ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী ভর্তি হয়েছিলেন। এর মধ্যে প্রায় অর্ধেকই মারাত্মক ঝুঁকিতে ছিলেন। তবে হাসপাতালটিতে মৃত্যুর হার মাত্র ২.৩ শতাংশ।

উল্লেখ্য, গত ৩১ ডিসেম্বর উহানে করোনাভাইরাস শনাক্তের পর এটি ওই অঞ্চলে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। উহানে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ও এর চিকিৎসায় গত ২৫ জানুয়ারি এ হাসপাতালটি নির্মাণের উদ্যোগ নেয় কর্তৃপক্ষ। মাত্র দুই সপ্তাহে হাসপাতালটি নির্মাণ করা হয়েছিল। হাসপাতালে শয্যা সংখ্যা ১ হাজার ৬০০।

Print Friendly, PDF & Email