মায়ের সঙ্গে কারাগারে যেতে হলো দুই শিশুকে

বগুড়ার সোনাতলায় একটি হত্যা মামলায় দুই নারীকে গ্রেপ্তার করে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। ওই দুই নারীর সঙ্গে তাদের দুই শিশু সন্তানকেও জেলহাজতে রাখা হয়েছে। শিশুদের একজনের বয়স আট মাস, আরেকজনের বয়স ১৪ মাস।

আজ রোববার বেলা ১টার দিকে পুলিশের একটি প্রিজনভ্যানে করে আসামিদের নিয়ে যাওয়া হয় জেলহাজতে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, চকনন্দন গ্রামের মৃত আছমত মোল্লার ছেলে আব্দুল খালেক মোল্লার লাউগাছ ছাগলে খাওয়াকে কেন্দ্র করে গত শনিবার দুপক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে মারপিট শুরু হয়। একপর্যায়ে প্রতিপক্ষের লোকজনের কোদালের আঘাতে শফিকুল ইসলাম গুরুতর আহত হন।

পরে তাকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়ার পথে মারা যান শফিকুল। এ বিষয়ে গতকাল রোববার নিহত শফিকুলের ভাই রফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে ২০ জনকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এ ঘটনায় চার নারীসহ ফারুক আহমেদ (৩৫) ও আব্দুল খালেক মোল্লাকে (৪৮) গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ সময় আট মাসের শিশু কন্যা তানিয়া খাতুনসহ শিবলু মিয়ার স্ত্রী তাছলিমা বেগম (২৫) ও ১৪ মাসের শিশু পুত্র তানভীর রহমানসহ ফারুক আহমেদের স্ত্রী ফাতেমা বেগমকে আটক করে পুলিশ।

এ বিষয়ে ওই মামলার এজাহারভুক্ত আসামি তাছলিমা বেগম ও ফাতেমা বেগম জানান, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ওই মামলায় তাদের আসামি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে সোনাতলি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহিদ হোসেন বলেন, ‘ ওই দুই নারী এই মামলার আসামি। তাদের দুই শিশু সন্তানের দেখভালের কেউ না থাকায় মায়েদের সঙ্গেই রাখা হয়েছে।’

Print Friendly, PDF & Email