ক্ষুধার যন্ত্রণায় ছটফট করা বৃদ্ধের পাশে কেউ যায়নি, অবশেষে মৃত্যু

ক্ষুধার যন্ত্রণায় রাস্তার ধারেই মারা গেল বৃদ্ধ মানুষটি। করোনা আতঙ্কের ভয়ে কেউ পাশে যায়নি। আমরা অনেক কথা বলি, কিন্তু বাস্তবে কে কতটুকু করি? এভাবেই আক্ষেপ প্রকাশ করলেন সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা শেখ তৈয়েবুর রহমান।

তিনি বলেন, বৃদ্ধ মানুষটি যখন ক্ষুধার যন্ত্রণায় ছটফট করেছে কেউ তার পাশে যায়নি। পরে হার্ট অ্যাটাক করে মারা গেছেন তিনি। মারা যাওয়ার পর পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। পরে স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীদের নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে দেখা যায় তার শরীরে করোনার কোনো উপসর্গ নেই।

সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার মথুরেশপুর ইউনিয়নের চরদা এলাকায় রোববার সকাল ১০টার দিকে ৭০ বছর বয়সী এক বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। প্রথমে তার পরিচয় পাওয়া না গেলেও পুলিশ তদন্ত করে জানতে পারে মৃত ব্যক্তিটি দেবহাটা উপজেলার পার কুলিয়া গ্রামের বাসিন্দা কেসমত আলী মোল্লা।

কালীগঞ্জ থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুর রহমান জানান, লোকটির বয়স ৭০-৭৫ বছর। তার পরনে ছিল লুঙ্গি ও নীল কালারের পাঞ্জাবি।

কালীগঞ্জ থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ (ওসি) দেলোয়ার হোসেন জানান, খোঁজ খবর নিয়ে জানতে পারি বৃদ্ধ মানুষটি একজন ভিক্ষুক। একটু মানসিক ভারসাম্যহীনও ছিলেন। মরদেহটি উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email