বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের লাশ দাফন সোনারগাঁয়ে, এলাকায় ক্ষোভ

বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি আবদুল মাজেদের লাশ সোনারগাঁয়ে দাফন করায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন এলাকাবাসী।

রোববার (১২ এপ্রিল) ভোরে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁ উপজেলাধীন শম্ভুপুরা ইউনিয়নের হোসেনপুর শ্বশুরবাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে খুনি মাজেদের নিকটাত্মীয়দের উপস্থিতিতে লাশ দাফন করা হয়। সকালে ঘটনা জানাজানি হলে এ নিয়ে এলাকায় চরম ক্ষোভ দেখা দেয়।

স্থানীয় আওয়ামী লীগ, মুক্তিযোদ্ধা ও সুশীল সমাজের লোকজন খুনি মাজেদের লাশ এখান থেকে উত্তোলন করে অন্যত্র দাফনের দাবি জানিয়েছেন।

শনিবার দিবাগত রাতে ১২টা ১ মিনিটে মাজেদের ফাঁসি কার্যকর হওয়ার পর তার লাশ গ্রামের বাড়ি ভোলায় নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ভোলার জনগণ ও রাজনৈতিক নেতাদের চাপে লাশ ভোলা না নিয়ে সোনারগাঁ নিয়ে যাওয়া হয়।

পরে ভোরে গোপনীয়তা মধ্য দিয়ে মাজেদের  শ্বশুরবাড়ি সোনারগাঁয়ের শম্ভুপুরা ইউনিয়নের হোসেনপুর পারিবারিক কবরস্থানে নিয়ে লাশ দাফন সম্পন্ন করা হয়।

এ সময় খুনি মাজেদের চাচা শ্বশুর আলী আক্কাস ও শ্যালক শহিদুজ্জামানসহ পরিবারের নিকট আত্মীয়-স্বজনরা উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে সোনারগাঁ উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট শামসুল ইসলাম বলেন, সকলের অজ্ঞাতসারে সোনারগাঁয়ে বঙ্গবন্ধুর খুনি মাজেদের লাশ দাফন করা হয়েছে। এ জন্য সোনারগাঁ আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ সংগঠনের পক্ষ থেকে তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জ্ঞাপন করা হয়েছে। তার লাশ তার পৈত্রিক বাড়ি ভোলায় দাফন না করে সোনারগাঁ করায় আমরা ক্ষুব্ধ। এতে করে সোনারগাঁকে কলঙ্কিত করা হয়েছে বলে মনে করি।

সোনারগাঁ উপজেলা ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শেখ এনামুল হক বিদ্যুৎ বলেন, আমাদের ইউনিয়নকে কলঙ্কিত করা হয়েছে কার অনুমতিতে, কীভাবে এখানে লাশ দাফন করা হলো আমরা প্রশাসনের কাছে জানতে চাইবো।

Print Friendly, PDF & Email