গলিতে ঢোকার পথ বন্ধ হলেও ভেতরে জমজমাট আড্ডা

পুলিশের অধিক তৎপরতায় খুলনা মহানগরী ও জেলার প্রধান সড়কগুলো ফাঁকা। অধিকাংশ গলির প্রবেশপথে বাঁশ দিয়ে আটকে রেখে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা হয়েছে। করোনা সংক্রমণ রোধের নামে এসব গলির প্রবেশপথ বন্ধ করা হলেও ভেতরে চলছে জমজমাট আড্ডা।

পুলিশের ওসব গলিতে ঢুকতে না পারায় আড্ডা চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে। অনেকেই চেয়ার নিয়ে রাস্তায় গোল বৈঠক করছেন।

তবে কেএমপি ও জেলা পুলিশের কর্মকর্তারা বলেছেন, গলিতে এ ধরনের প্রতিবন্ধকতা থাকবে না। আড্ডা বন্ধ করতে হবে।

খুলনা মহানগরের সদর, সোনাডাঙ্গা, খালিশপুর, দৌলতপুরসহ অধিকাংশ থানা এলাকার বিভিন্ন গলিতে দেখা গেছে, কিশোর-যুবকদের আড্ডা চলছে। গলির প্রবেশপথে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করে রাখায় পুলিশ ঢুকতে পারছে না। একই চিত্র জেলার বিভিন্ন থানা এলাকায় দেখা গেছে।

এলাকাবাসী জানায়, কিশোর-যুবকরা গলির প্রবেশপথ বাঁশ দিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন। কিন্তু তারাই সকাল থেকে রাত অবদি গলিতে আড্ডা দিচ্ছে। পুলিশের গাড়ি আগে টহল দিতে আসতো। কিন্তু ২-৩ ধরে গলিতে ঢুকতে পারছে না পুলিশের গাড়ি।

এ বিষয়ে জেলা পুলিশের অতিরিক্ত সুপার আনিসুর রহমান বলেন, গলির প্রবেশপথে এ ধরনের প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হয়েছে তা আমার জানা নেই। খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার খন্দকার লুৎফুল কবির বলেন, বিষয়টি সব থানা এলাকায় খোঁজ নিয়ে দেখা হবে। পুলিশের টহলে বাধা সৃষ্টি হয়; এমন কোনো প্রতিবন্ধকতা থাকবে না।

Print Friendly, PDF & Email