এখন যুদ্ধের সময়

গত কয়েকদিনের সংবাদ শিরোনাম:
১.৬ দিনে ৫ হাসপাতালে ঘুরেও মেয়েকে ভর্তি করাতে পারেননি।
২.করোনা ভেবে চিকিৎসা দেয়নি কোনো হাসপাতাল, অবশেষে মৃত্যু।
৩.জ্বর, সর্দি, কাশি আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দিচ্ছে না হাসপাতাল।
৪.জ্বর ও কাশিতে আক্রান্ত দুইজন বিনা চিকিৎসায় মারা গেছেন।
৫.অ্যাম্বুলেন্সেই ১৬ ঘণ্টা,৬ হাসপাতাল ঘুরে বিনাচিকিৎসায় মৃত্যু।
খুঁজলে এমন আরো কিছু সংবাদ শিরোনাম পাওয়া যাবে।এখন যুদ্ধের সময়।
যুদ্ধের ময়দানে একজন সৈনিকের বন্দুকের গুলি শেষ হয়ে গেলে কী করেন? বেয়নেট থাকলে সেটা কাজে লাগান, তাইতো? তার বেয়নেটটা যদি শত্রুপক্ষ কেড়ে নেয় তখন কী করেন? মল্লযুদ্ধ করেন, তাইনা? তার মানে শেষ পর্যন্ত লড়ে যান একজন সৈনিক।

আমাদের করোনা সৈনিকরা এখন কী করবেন? আপনারাইতো এ যুদ্ধের প্রথম ও প্রধান লাইন অব ডিফেন্স। আজ পর্যন্ত ৩ লক্ষ ৭৭ হাজার ১৪০ পিপিই সরবরাহ করা হয়েছে। মজুদ আছে ৪২ হাজার ৮৭০। আরো আসছে…।
আমার চিকিৎসক বন্ধুরা নিশ্চয়ই বিনা চিকিৎসায় মৃত্যুর সংবাদ কখনোই দেখতে চান না।

লেখক :  জায়েদুল আহসান পিন্টু, সম্পাদক, ডিবিসি নিউজ

Print Friendly, PDF & Email