মহামারীতেও ম্যাডোনার নগ্নতা

নভেল করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে বাঁচতে বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন দেশের নাগরিকদের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকার পরামর্শ দিয়েছে সরকার। অনেকেই আবার স্বাস্থ্যগত পরিস্থিতি অবনতি হওয়ায় নিজ উদ্যোগে কোয়ারেন্টাইনে চলে গেছেন। তাদের মধ্যে রয়েছেন- তারকা খেলোয়াড়, অভিনেতা, সংগীতশিল্পীসহ অনেকে।

এদের মধ্যে রয়েছেন পপস্টার ম্যাডোনাও। সম্প্রতি বিশ্বনন্দিত এই পপস্টার তার টুইটারে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। আর তাই নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চলছে তোলপাড়। প্রকাশিত ওই ভিডিওতে ম্যাডোনা করোনা ভাইরাস নিয়ে তার অনুভূতি বর্ণনা করেছেন। তবে ভিডিওটি অন্যান্য তারকার কোয়ারেন্টাইন ভিডিওর মতো নয়।

ভিডিওতে ম্যাডোনাকে দেখা যায় সম্পূর্ণ নগ্ন অবস্থায় একটি বাথটাবের ভেতরে, তার শরীরের ওপরে ফুলের পাপড়ি ছড়ানো। তিনি কথা বলছিলেন কীভাবে এই বিশ্ব মহামারী মানুষের জীবন বদলে দিয়েছে।

কীভাবে এই মহামারীর মাধ্যমে সব মানুষ একই কাতারে নেমে এসেছে। তিনি আরো বলেছেন, এটাই হলো করোনা ভাইরাসের সবচেয়ে ভালো দিক, এই ভাইরাস আমাদের সবাইকে একই কাতারে নামিয়ে এনেছে। সবাই নিজেদের মতো করে ভালো থাকবেন।

৩৫ বছর ধরে গানের জগতে নিজের আধিপত্য ধরে রেখেছেন ম্যাডোনা। ম্যাটেরিয়াল গার্ল হিসেবে পরিচিত তিনি। তাকে বলা হয় ‘কুইন অব পপ’। গান গেয়ে কোটি কোটি পুরুষকে হূদয়ে ঝড় তুলে চলেছেন ৬১ বছর বয়সেও। তিনি গায়িকা, অভিনেত্রী ম্যাডোনা। প্রায় চার দশক বা ৪০ বছর ধরে বিশ্বসংগীতে রাজত্ব করছেন তিনি। এই বয়সেও নিজের রূপ ধরে রেখেছেন গায়িকা।

কিছুদিন আগে ফাঁস হয়েছিল ম্যাডোনার রূপের রহস্য। এবার নতুন খবরে চমকে দিলেন তিনি। মাত্র ২৫ বছর বয়সের এক যুবকের সঙ্গে নাকি প্রেমে মজেছেন ম্যাডোনা।

ডেইলি মেইলে খবর প্রকাশ হয়েছে, ৬১ বছরের মার্কিন পপ তারকা ম্যাডোনার ২৫ বছর বয়সী প্রেমিকের নাম আহমালিক ইউলিয়ামস। এরই মধ্যে ইউলিয়ামসের বাবা ও মাকে নৈশভোজে আমন্ত্রণ জানিয়ে তাদের ছেলের প্রতি ভালোবাসার কথা জানিয়েছেন ম্যাডোনা।

প্রেমিকের চেয়ে ম্যাডোনা ৩৬ বছরের বড় হলেও মার্কিন পপ তারকার সঙ্গে তার ছেলের সম্পর্কে উইলিয়ামসরা বেশ খুশি বলেই জানিয়েছেন ইউলিয়ামের বাবা-মা। শোনা যাচ্ছে, ২০২০ সালে লন্ডন ও ফ্রান্সে ম্যাডোনার যে শো রয়েছে, সেখানেও তার ভালোবাসার মানুষের বাবা, মাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ম্যাডোনা।

ম্যাডোনা আমেরিকার সবচেয়ে ধনী নারী সংগীতশিল্পী। ফোর্বসের হিসাবমতে, ম্যাডোনার মোট সম্পদের পরিমাণ ৫৮০ মিলিয়ন ডলার বা প্রায় ৪ হাজার ২০০ কোটি টাকা। ম্যাডোনার সুপার বোল পারফরম্যান্স ছিল রেকর্ড ভাঙা।

ইউকে চার্টের সেরা পাঁচে ম্যাডোনা সবচেয়ে বেশিবার স্থান পাওয়া নারীশিল্পী। ম্যাডোনার গাওয়া ৪৬টি সিঙ্গেল ইউকে চার্টের সেরা পাঁচে স্থান পেয়েছে। এক্ষেত্রে ম্যাডোনার চেয়ে এগিয়ে আছেন মাত্র একজন, তিনি এলভিস প্রিসলি। সেরা পাঁচে থাকার এই সাফল্য ম্যাডোনা ধারাবাহিকভাবে তিন-তিনটি দশক ধরে পেয়েছেন ১৯৮০, ১৯৯০ ও ২০০০-এ। স্পটিফাইয়ের জরিপে ম্যাডোনার সবচেয়ে জনপ্রিয় গানগুলো যথাক্রমে লাইক আ ভার্জিন, হাঙ আপ, হলিডে, লা ইসলা বোনিতা, লাইক আ প্রেয়ার।

Print Friendly, PDF & Email