ফেসবুক বার্তাটি সব মিডিয়াই লুফে নিয়েছে…

কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর স্ত্রী সোফি গ্রেগরি ট্রুডো করোনায় আক্রান্ত হয়ে ১৪ দিন সেলফ আইসোলেশনে ছিলেন। এই সময়টায় কোনো মিডিয়াই তাকে নিয়ে তেমন কোনো সংবাদ প্রকাশ/প্রচার করেনি। আইসোলেশনে তিনি কেমন আছেন, সময় কিভাবে কাটছে, অসুস্থতা কাটছে কী না- এই সব নিয়ে মিডিয়া একদমই আগ্রহ দেখায়নি। এই সময়টায় প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো প্রতিদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েছেন। সাংবাদিকরা তাকে পরিস্থিতি, সরকারের কর্মতৎপরতা নিয়ে প্রশ্ন করেছেন। কিন্তু কেউ সোফিকে নিয়ে প্রশ্ন করেননি।

সেলফ আইসোলেশনের সময় উত্তীর্ণ হয়ে গেলে তিনি আবার সংবাদ শিরোনাম হয়েছেন, সাংবাদিকরা তার শারীরিক অসুস্থতার খবর জানতে চেয়েছেন। জাস্টিন ট্রুডো সাংবাদিকদের ‘তিনি সুস্থ হয়ে উঠেছেন’ বলে জানান। তিনি এও জানান, সোফি এবং ট্রুডোর পুরো পরিবার করোনাভাইরাসে করণীয় হিসেবে বিশেষজ্ঞরা যে পরামর্শ দিয়েছেন, দেশের নাগরিকদের মতো তারাও সেটি অনুসরণ করছেন।
পরে সোফি তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে কানাডিয়ানদের জানান, তিনি সুস্থ হয়ে উঠেছেন। অটোয়া পাবলিক হেলথ এবং তার চিকিৎসক তাকে করোনা মুক্ত হিসেবে ঘোষণা দিযেছেন। করোনায় আক্রান্ত কেউ সুস্থ হবার পর ২৪ ঘণ্টায় দুই দফা টেস্ট করে ফলাফল নেগেটিভ পাওয়া গেলেই তাকে সুস্থ হিসেবে ঘোষণা দেয়া হয়। সোফি সেই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। সোফির এই ফেসবুক বার্তাটি সব মিডিয়াই লুফে নিয়েছে।

(ফেসবুক থেকে সংগৃহীত)

লেখক : প্রকাশক ও সম্পাদক, নতুন দেশ ডটকম।

Print Friendly, PDF & Email