রাজধানীতে একটি ভবন লকডাউন, ঘিরে রেখেছে পুলিশ

করোনাভাইরাস আক্রান্তে রাজধানীর মিরপুরে একটি ভবন ঘিরে রেখেছে পুলিশ। ওই ভবনে ও তার আশেপাশে চলাচলও সীমিত করা হয়েছে। ওই ভবনে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এক রোগীর পরিবার রয়েছে উল্লেখ করে আইইডিসিআর থেকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে যেন ওই ভবন থেকে কেউ বের হতে না পারে।

শনিবার (২১ মার্চ) বিকেল পৌন ৪টায় বিষয়টি নিশ্চিত করেন পুলিশের মিরপুর বিভাগের ডিসি মোস্তাক আহমেদ।

তিনি বলেন, মিরপুর উত্তর টোলারবাগ দারুসসালাম এলাকার একটি ভবনের একটি পরিবারকে হোম কোয়ারান্টাইন বাধ্যতামূলক পালনের নির্দেশনা দিয়েছে আইইডিসিআর। সেজন্য ভবনটি নজরদারিতে রাখা হয়েছে। ওই ভবন থেকে যেন কেউকে বের হতে না পারেন। ওই ভবনে প্রবেশ সংরক্ষিত ও এলাকায় চলাচল সীমিত করা হয়েছে

এ বিষয়ে ডিসি মোস্তাক আহমেদ বলেন, মিরপুরের একটি ভবনে একটি পরিবারকে হোম কোয়ারান্টাইন বাধ্যতামূলক পালনের নির্দেশনা দিয়েছে আইইডিসিআর। সেজন্য ভবনটি নজরদারিতে রাখা হয়েছে। ওই ভবন থেকে যেন কেউ বের হতে না পারেন। ওই ভবনে প্রবেশ সংরক্ষিত ও এলাকায় চলাচল সীমিত করা হয়েছে।

জানা গেছে, বিদেশ ফেরত সন্তানের কাছ থেকে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে গনি ইসলাম (৬৫) মারা যাওয়ায় রাজধানীর মিরপুরে উত্তর টোলারবাগের ওই ভবন ঘিরে রেখেছে পুলিশ। ওই ভবনে ও আশেপাশে চলাচলও সীমিত করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, ওই ভবনে একজন করোনাভাইরাস পজিটিভ ব্যক্তি ছিলেন। এমন তথ্য জানায় স্বাস্থ্য অধিদফতর ও আইইডিসিআর। সতর্কতার জন্য আক্রান্ত ওই রোগীর সঙ্গে সম্ভাব্য চলাফেরা ও মেলামেশা করা ভবনের অন্যদের হোম কোয়ারান্টাইন বাধ্যতামূলক করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email