প্রধানমন্ত্রীর কণ্ঠে বাবাকে নিয়ে বোনের লেখা কবিতা

হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ছোট বোন শেখ রেহানার লেখা কবিতা আবৃত্তি করলেন বড় বোন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাবা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে লেখা আবেগঘন সেই কবিতায় হৃদয় ছুয়েছে সবার।মঙ্গলবার রাতে মুজিববর্ষের বিশেষ উদ্বোধনী আয়োজনে প্রধানমন্ত্রীর কবিতা আবৃত্তি সম্প্রচার মাধ্যমে প্রচার করা হয়। টেলিভিশনের কল্যানে তা দেখেছে সারাদেশের মানুষ।

‘বাবা’ শিরোনামের এই কবিতা শেখ রেহানা লিখেছিলেন ২০১০ সালে। বঙ্গবন্ধু যখন বেঁচে ছিলেন তখন তাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতেন কিভাবে সেটি উঠে এসেছে কবিতায়। মহান এই নেতা এখন প্রয়াত। তার অনুপস্থিতি কিভাবে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাবেন সেটিই খুঁজে ফিরেছেন কবিতায়।বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবনের অডিও-ভিজ্যুয়াল দিয়ে সাজানো হয় কবিতা পাঠের অংশটি, যাতে সংযুক্ত করা হয় ঐতিহাসিক সাতই মার্চের ভাষণের একটি অংশও।

জন্মদিনে প্রতিবার একটি ফুল দিয়েশুভেচ্ছা জানানো ছিল
আমার সবচেয়ে আনন্দ।
আর কখনো পাবো না এই সুখ
আর কখনো বলতে পারব না
শুভ জন্মদিন।কেন এমন হল?
কে দেবে আমার প্রশ্নের উত্তর।
কোথায় পাব তোমায়…
যদি সন্ধ্যা তারাদের মাঝে থাক
আকাশের দিকে তাকিয়ে বলব
শুভ জন্মদিনতুমি কি মিটি মিটি জ্বলবে?
যদি বিশাল সমুদ্রের সামনে
ঢেউদের খেলার মাঝে থাকো বলব
শুভ জন্মদিনসমুদ্রের গর্জনে শুনব
কি তোমার বজ্রকণ্ঠ?
পাহাড়ের চূড়ায় যেখানে মেঘ
তুমি কি ওখানে?
তাকিয়ে বলব
শুভ জন্মদিনএক টুকরো সাদা মেঘ ভেসে যাবে
ওখানে কি তুমি?
আকাশে বাতাসে পাহাড়ে উপত্যকায়
তোমাকে খুঁজব, ডাকব
যে প্রতিধ্বনি হবে
ওখানে কি তুমি?
শুভ জন্মদিন।
শুভ জন্মদিন।

Print Friendly, PDF & Email