শিক্ষিকার জোড়া লাগানো হাতে রক্ত চলাচল করছে

উইলস লিটল ফ্লাওয়ারের শিক্ষিকা ফাহিমা বেগমের জোড়া লাগানো হাতে রক্ত চলাচল শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) বিকেল ৪টার দিকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি ওই শিক্ষিকাকে দেখার পর সাংবাদিকদের এ কথা বলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

এর আগে তিনি তার চিকিৎসার খোঁজখবর নেন। পরে সাংবাদিকদের জানান, রোগীর শারীরিক অবস্থা আগের থেকে ভালো। সংযোজন হওয়া হাতটির অবস্থা সম্পর্কে বলেন, হাতটিতে রক্ত চলাচল শুরু হয়েছে। আরো ৪/৫ দিন সময় না গেলে বুঝা যাবে না। আশা করি ও দোয়া করি তিনি যেন সুস্থ হয়ে যান। আপনারাও দোয়া করবেন।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের মতো প্রতিষ্ঠান হয়েছে বলে উইলস লিটল ফ্লাওয়ারের শিক্ষিকা ফাহিমা বেগমের হাত জোড়া লাগানো গেছে। এজন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। তিনি আরও বলেন, আগামীতে বিভিন্ন হাসপাতালে যেন এ ধরনের চিকিৎসা করা যেতে পারে, সেজন্য এই ইনস্টিটিউটে চিকিৎসকদেরকেও প্রশিক্ষণ দেয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত ১০ মার্চ ২০২০ গোপালগঞ্জে ঢাকার উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষা সফরের বাস দুর্ঘটনায় সৈয়দা ফাহিমা বেগমের বাম হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। সেইসঙ্গে অন্তত ১৫ শিক্ষার্থী আহত হয়।

তাৎক্ষণিক তাদের গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহতদের সেখানেই রেখে গুরুতর আহত ওই শিক্ষিকাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে হেলিকপ্টারে ঢাকায় পাঠানো হয়। এরপর তাকে শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নেয়া হয়। সেখানে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে বিচ্ছিন্ন হাত জোড়া লাগান চিকিৎসকরা।

Print Friendly, PDF & Email