লক্ষ্মীপুরে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর ফাঁদে পড়লেন আ’লীগ নেতা

নিজস্ব প্রতিবেদক : লক্ষ্মীপুরে তাঁতীদের একটি সংগঠনের সভাপতি পদে নির্বাচন করতে গিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর ফাঁদে পড়ে মনোনয়নপত্র জমা দিতে পারেননি জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ রাসেল মাহমুদ ভূঁইয়া। এ ব্যাপারে রবিবার (৮ মার্চ) সন্ধ্যায় লক্ষ্মীপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন এই আওয়ামী লীগ নেতা। এর আগে বিকেলে তিনি জেলা প্রশাসকের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

জানা গেছে, তাঁতীদের সংগঠন লক্ষ্মীপুর থানা তন্তুবায় সমবায় সমিতি লিমিটেডের বর্তমান ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি লক্ষ্মীপুর পৌরসভার মেয়র এম এ তাহের। তিনি আসন্ন নির্বাচনে সভাপতি পদপ্রার্থী। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী লক্ষ্মীপুর জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক রাসেল মাহমুদ ভূঁইয়া। তারা দুজনই সংগঠনটির সদস্য। রবিবার (৮ মার্চ) বিকাল ৪টা পর্যন্ত মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ সময় ছিল। কিন্তু সংগঠনটির বিধিমোতাবেক মনোনয়নপত্রে বর্তমান কমিটির সভাপতি অথবা নির্বাহী কর্মকর্তার সত্যায়ন সূচক স্বাক্ষর না পাওয়ায় রাসেল মাহমুদ ভূঁইয়া মনোনয়নপত্র দাখিল করতে পারেননি।

সংবাদ সম্মেলনে রাসেল মাহমুদ ভূঁইয়া সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন, ‘তাঁতীদের সংগঠনটির বর্তমান কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচন সম্পন্ন করতে পরিকল্পিতভাবে ফাঁদ পেতেছেন। যেকারণে আমার মনোনয়নপত্রে সত্যায়ন সূচক স্বাক্ষর দেওয়া হয়নি। শুধু আমি নই, সাধারণ সম্পাদক পদপ্রার্থী একাধিক প্রার্থীকে এমন ফাঁদে ফেলা হয়েছে। এর মধ্যে দিপংকর চৌধুরী দিপু ও মীর শাহ আলম রয়েছেন।

‘তাঁতীদের শ্রমঘামে তিল তিল করে গড়ে তোলা সংগঠনটির শতকোটি টাকার সম্পত্তি আত্মসাৎ করার ষড়যন্ত্রে বর্তমান কমিটির নেতৃবৃন্দ লিপ্ত রয়েছেন বলেও অভিযোগ করেছেন রাসেল মাহমুদ ভূঁইয়া।

উল্লেখ্য, ১৯৪৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় তাঁতীদের সংগঠন ‘লক্ষ্মীপুর থানা তন্তুবায় সমবায় সমিতি লিমিটেড’। আগামী ৪ এপ্রিল সংগঠনটির ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এতে মোট ভোটার সংখ্যা ৫০৪। তবে সংগঠনটির বর্তমান সদস্য সংখ্যা ৮১০ জন।

 

শীর্ষ সংবাদ/আপ্র

Print Friendly, PDF & Email