এবার দিল্লিতে নেমেছেন নারীরা

ভারতের সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে শাহীনবাগের পর এবার দিল্লির জাফরাবাদে বিক্ষোভে নেমেছেন নারীরা। সড়ক অবরোধের পাশাপাশি এতে বন্ধ রয়েছে জাফরাবাদের মেট্রো স্টেশন।

অন্যদিকে, দুই মাসের বেশি সময় পর জামিয়া থেকে নদীয়া ও ফরিদাবাদের সড়ক খুলে দিয়েছেন শাহীনবাগের আন্দোলনকারীরা।

এদিকে, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ভারতের নারীদের জন্য প্রযোজ্য নয় বলে দাবি করেছেন বিজেপির সাংসদ স্মৃতি ইরানি।

এন.আর.সি এবং সি.এ.এ-বিরোধী স্লোগানের পাশাপাশি আজাদী আজাদী স্লোগান মুখর দিল্লির জাফরাবাদ মেট্রোস্টেশন। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে স্থানীয় সময় রোববার রাত থেকে মেট্রো স্টেশনের পাশে অবস্থান নেন কয়েক’শ নারী। সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে আন্দোলনকারীর সংখ্যা।

একইসঙ্গে সালিমপুর থেকে মজপুর ও যমুনা বিহারের রাস্তা বন্ধ করে দেন আন্দোলনকারীরা। কেন্দ্র সরকার বিতর্কিত আইন বাতিল না করা পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয়া হয়। ভীম সেনাপ্রধান চন্দ্র শেখর আজাদের ভারত বনধ কর্মসূচিকেও সমর্থন জানান আন্দোলনকারীরা।

বিক্ষোভের জেরে বন্ধ হয়ে যায় জফরাবাদ মেট্রোস্টেশনের সেবা। বন্ধ করে দেওয়া হয় প্রবেশ ও বাহির হওয়ার পথ। জাফরাবাদ স্টেশনে কোনো ট্রেন থামছে না বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

অনাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতে মোতায়েন করা হয়েছে নিরাপত্তা বাহিনীর বাড়তি সদস্য। গুরুত্বপূর্ণ সড়ক বন্ধ হয়ে যাওয়ায় দুর্ভোগে পড়েন সাধারণ মানুষ। তবে বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে আলোচনার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

এদিক দুই মাসের বেশি সময় পর নয়াদিল্লির জামিয়া থেকে নদীয়া ও ফরিদাবাদের সড়ক খুলে দিয়েছেন শাহীনবাগের আন্দোলনকারীরা।

দিল্লির শাহীনবাগের আন্দোলনের বিষয়ে বিজেপির সাংসদ স্মৃতি ইরানি বলেছেন, সিএএ নিয়ে ভারতের নারীদের উদ্বেগের কিছু নেই। পাকিস্তান ও বাংলাদেশের সংখ্যালঘু নারীদের নাগরিকত্ব দেয়ার জন্যই সিএএ প্রণয়ন করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email