একদিকে অপসারণের চলছে অপরদিকে গিটারে সুর তুলছেন রোগী

মাথায় চলছে অস্ত্রোপচার। হাতে গিটার। ‍বৃদ্ধা-তর্জনীর ছোঁয়ায় অপারেশন থিয়েটারে বিরহের সুর। ডাক্তার সরাচ্ছেন টিউমার টিস্যু, সংশয়ে থাকা জীবন সেখানে ছয় তারে খুঁজে ফিরছে সংগীত।

লন্ডনের কিংস কলেজ হাসপাতালে ডাগমার টার্নার নামের এক নারী গিটারিস্টের ব্রেন সার্জারির সময় এই দৃশ্যের অবতারণা হয়। আধুনিক চিকিৎসা ব্যবস্থায় ব্রেন টিউমারের অপারেশনে রোগীকে শতভাগ অচেতন করার দরকার পড়ে না।

রোগীর জ্ঞান থাকলে চিকিৎসকদের বরং সুবিধা হয়। তার স্নায়ু ঠিকমতো কাজ করছে কি না, এটি সহজে তারা বুঝতে পারেন। তাই এই ধরনের অপারেশনের সময় সার্জনরা রোগীর সঙ্গে কথোপকথন চালিয়ে যান।

৫৩ বছর বয়সী ডাগমারের মাথায় যেখানে টিউমার ধরা পড়ে গিটার বাজানোর জন্য সেই অঞ্চলটি গুরুত্বপূর্ণ। একটু এদিক-ওদিক হলে তার যন্ত্রসংগীতের দক্ষতা উবে যেতে পারত। তাই চিকিৎসকেরা অপারেশনের সময় তাকে গিটার বাজাতে বলেন।

‘গিটার, ভায়োলিন আমার প্যাশন। জীবন। ১০ বছর বয়স থেকে বাজাচ্ছি,’ সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে ডাগমার সিএনএনকে বলেন, ‘আর কোনোদিন বাজাতে পারব কি না, সেটি ভাবতেই কান্না পাচ্ছিল। গিটার হাতে নিতে না পারার থেকে মরে যাওয়া ভালো!’

Print Friendly, PDF & Email