মাশরাফিকে দেড় মাস অপেক্ষা করতে হবে, জানালেন পাপন

সফরত জিম্বাবুয়ে বিপক্ষে আসন্ন সিরিজে শেষবারের মতো অধিনায়কত্ব করবেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। আর এরপরের সিরিজে নতুন অধিনায়কের অধীনে খেলতে হবে তাঁকে। অবশ্য তার আগে ফিট থেকে ও পারফর্ম করে জাতীয় দলে জায়গা করে নিতে হবে তাঁকে। ৩৬ বছর বয়সী এই পেসারকে রীতিমতো আল্টিমেটাম দিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)।

বুধবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে মিডিয়ার সামনে এসব বলেছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

বিসিবি সভাপতি বলেন, নতুন অধিনায়ক আমরা ঘোষণা করে দেব। প্লেয়ার হিসেবে কেউ যদি পারফর্ম করে, ফিট থাকে- তাহলে দলে ঢুকবে। অধিনায়কত্ব ছাড়া ও যদি খেলে যেতে চায় খেলবে। আমরা না করছি না। কিন্তু দলে সুযোগ পাবেন কী না এই নিশ্চয়তা আমরা দিতে পারছি না। জাতীয় দলে জায়গা পেতে হলে যা যা দরকার তা তা করে আসতে হবে।

কেননা ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের সময় থেকেই পাপনের সঙ্গে অবসর নিয়ে কথা বলেন মাশরাফি। যদিও দেশে ফিরে অবসরের ব্যাপারে বিসিবির সঙ্গে তেমন কোনো যোগাযোগ করেননি তিনি। আর দেশের ক্রিকেটের অন্যতম সেরা এই অধিনায়ককে বিদায়ী সংবর্ধনা দিতে চেয়েছে বিসিবি। কিন্তু সেখানেও দ্বিমত আছে মাশরাফির। পাপন বলেন, ওর সাথে আমার শেষ কথা হয়েছে বিশ্বকাপের সময়। তখন এমন কথা হয়েছে যে ঘরের মাঠে আমরা যদি কোনো হোম সিরিজ আয়োজন করতে পারি, সেখানে সে অবসরে যেতে পারে।

তিনি বলেন, ওখান থেকে আসার পর দেখলাম ও ওর মানসিক অবস্থার পরিবর্তন করেছে। ও এটা চাচ্ছে না। এরপরে দেখলাম আমরা যে ওর অবসরের দিনে একটু হুলস্থূল করব, সেটাও সে চায় না। সে এসব চায় না। আমি পত্রপত্রিকায় যা দেখেছি। আমার কাছে কিছু বলেনি। ও এসব চায় না। তো আমাদের তো একটা সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

বিসিবি সভাপতি আরো বলেন, ডেডলাইন নিয়েছি খুব শিগগিরই। এক মাস- দেড় মাস। এরপরে বিশ্বকাপে যারা নেতৃত্ব দিতে পারে এমন কাউকে আমাদের বেছে নিতে হবে। তো ওখানে মাশরাফি থাকবে কিনা, এটা জানার জন্য এক থেকে দেড় মাস অপেক্ষা করতে হবে মাশরাফিকে।

Print Friendly, PDF & Email