ওয়েব সিরিজে ব্যস্ত আইরিন

চলচ্চিত্র ও ওয়েব সিরিজ দুই মাধ্যমেই ব্যস্ত আছেন চিত্রনায়িকা আইরিন সুলতানা। বুলবুল জিলানীর ‘রোদ্রছায়া’, অরণ্য পলাশের ‘গন্তব্য’, সাইফ চন্দনের ‘টার্গেট’ ছবির শুটিং শেষ করেছেন। বাংলাদেশের এ কয়েকটি ছবির পাশাপাশি মুক্তির অপেক্ষায় আছে কলকাতা প্রোডাকশনের ‘শিবরাত্রি’ ছবিটিও। ছবিগুলো নিয়ে আইরিন বলেন, ‘ছবিগুলোর কাজ শেষ করেছি অনেক আগে তবে কোনটা কবে মুক্তি পাবে তা বলতে পারছি না। প্রতিটি চলচ্চিত্রে আমার চরিত্রে ভিন্নতা রয়েছে। ছবিগুলো নিয়ে আমি ভালো কিছু আশা করছি।’

নতুন ছবি ‘সেভ লাইফ’-এ অভিনয় করছেন আইরিন। তিনি বলেন, ‘ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মকাণ্ড ও এই বাহিনীর সদস্যদের আত্মত্যাগের ওপর ভিত্তি করে নির্মিত হচ্ছে ‘সেভ লাইফ’। ছবিটি পরিচালনা করছেন আমিরুল ইসলাম শোভা। এর শুটিং শুরু হয়েছিল গত বছর। এতে ফায়ার সার্ভিস কর্মীর চরিত্রে অভিনয় করছেন আইরিন। এ ছাড়া অনন্য মামুনের ‘পার্টনার’ ছবিতেও কাজ করছেন তিনি। এ দুটো ছবির শুটিং শেষ না হলেও চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে শুরু করবেন কলকাতার লোকাল ছবি ‘কাউন্ট ডাউন’-এর শুটিং। ঢালিউডের এ নায়িকা বলেন, ‘ছবিটির চুক্তি অনেক আগেই হয়েছিল। এবার শুটিংয়ে যাচ্ছে ছবিটি। সিনেমাটি পরিচালনা করবেন পার্থ সারথী ভট্টাচার্য। প্রযোজনা করছে ক্রিয়েটিভ নির্ভানা। সবকিছু ঠিক থাকলে ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ নাগাদ শুটিং শুরু হবে।’

কলকাতার ‘কাউন্ট ডাউন’ ছবিতে অভিনয় করবেন আইরিন। তবে তার বিপরীতে নায়ক কে হবেন তা এখনো জানা যায়নি। ছবির গল্পটি গড়ে উঠেছে নারীবাদী প্রেক্ষাপটে। এক কথায় এটি একটি নারীবাদী সিনেমা। আইরিন বলেন, ‘ছবির গল্পটি শোনার পর আমি রাজি হয়ে যাই কাজ করতে। ধর্ষণের শিকার নির্যাতিত নারীদের নিয়ে গড়ে উঠেছে সিনেমার গল্প। মূলত ভিকটিমদের পক্ষে কথা বলার জন্যই আমার চরিত্রটি গড়ে উঠেছে।’

সুযোগ পেলে ছোটপর্দাতেও অভিনয় করবেন এ তারকা। আইরিন বলেন, ‘ছোটপর্দার অনেকে চলচ্চিত্রে নিয়মিত হলে আর নাটকে দেখা যায় না। আইরিনের বেলাতেও তাই। ২০০৯-১০ সালের দিকে ‘ম্যান পাওয়ার’ নামে নাটকে প্রথম কাজ করেন। কিন্তু প্রথম প্রচার হয় ‘পৌষ-ফাগুনের পালা’। প্রথম ‘রবি’র বিজ্ঞাপনে মডেল হয়েছিলেন। এই অভিনেত্রী বলেন, ‘নাটকে আর কাজ করব না এটা হলফ করে বলছি না। আসলে চলচ্চিত্র নিয়ে ব্যস্ততায় নাটকে কাজ করার সুযোগ হচ্ছে না। তবে বিজ্ঞাপনে কাজ করছি। মাস তিনেক আগেও তো বিউটি প্রোডাক্টের একটি বিজ্ঞাপনে কাজ করেছি। সুযোগ পেলে ছোটপর্দাতেও কাজ করব।’

ক্রমশ চলচ্চিত্রের অবস্থা মন্দের দিকে যাচ্ছে। কমছে সিনেমা, বন্ধ হচ্ছে সিনেমা হল। দর্শক হলবিমুখ। লোকসানের কবলে পড়ছেন প্রযোজকরা। চলচ্চিত্রের এমন নাজুক পরিস্থিতি নিয়ে আইরিন বলেন, ‘ভালো মানের ছবি নির্মাণ হলে দর্শক সিনেমা হলে আসবে। সেই সঙ্গে সিনেমা হলের পরিবেশ ভালো করতে হবে। বছরে অনেকগুলো ছবি না হয়ে যদি ভালো গল্পের, ভালো নির্মাণের, উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারে ২০টির মতো চলচ্চিত্র নির্মাণ হয় সেটাই সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিজের জন্য অনেক কিছু। সংখ্যার চেয়ে মানের গুরুত্ব দেওয়া দরকার। এরকম দর্শক ধরে রাখার মতো বছরে ১৫-২০টি ছবি নির্মাণ হলেই তো চলচ্চিত্রের অবস্থা পাল্টে যাবে।’

পর্দার পাশাপাশি মঞ্চেও কাজ করেন অনেক তারকা। অনেকেই পর্দায় কাজের অভাবে আবার কেউ কেউ চাহিদার কারণে মঞ্চে পারফর্ম করেন। শাকিব খান, সিয়াম, পপি, অপু বিশ্বাস, মেহজাবীনের মতো তারকারাও মঞ্চে কাজ করেন। তাদের সঙ্গে দেখা মেলে চিত্রনায়িকা আইরিনের। তিনি সর্বশেষ মঞ্চে পারফর্ম করেন গত বছরের শেষে সেনাবাহিনীর একটি অনুষ্ঠানে। আইরিন বলেন, ‘ভালো প্রস্তাব পেলে মঞ্চে প্রোগ্রাম করা হয়। সর্বশেষ থার্টিফার্স্টের একটি অনুষ্ঠান করেছিলাম। সামনে আরো কিছু প্রোগ্রাম হাতে আছে।’

আইরিন মনে করেন, চলচ্চিত্রে নায়ক-নায়িকা সংকট নেই। যারা দাবি করেন নায়ক-নায়িকা সংকট, তাদের সঙ্গে আইরিন একমত নন। আইরিন বলেন, ‘আমি এখানে কাজ করছি। দেখতে পাই অনেক নায়ক-নায়িকা আছেন। তাদের সঠিকভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে না।’

যশোরের নওয়াপাড়ার মেয়ে আইরিন সুলতানা ২০০৮ সালের ‘প্যান্টেনা ইউ গট দ্য লুক’ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে মিডিয়ার আসেন। সেবার আইরিন ‘সেরা হাসি’ পুরস্কার পেয়েছিলেন। এরপর তিনি দেশে এবং বিদেশে বহু র‍্যাম্প মডেলিং অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছেন।

আইরিনের প্রথম ছবি ‘প্রিয়তমা তুমি দাড়ি আমি কমা’ হলেও মুক্তি পাওয়া প্রথম ছবি দেবাশীষ বিশ্বাস পরিচালিত ‘ভালোবাসা জিন্দাবাদ’।

Print Friendly, PDF & Email