লক্ষ্মীপুরে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সালিশি বাণিজ্যের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক :

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ উপজেলার করপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান মুজিবুল হক মুজিবের বিরুদ্ধে সালিশি বাণিজ্যের অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকালে সাংবাদিকদের কাছে লিখিত একটি পত্রের মাধ্যমে অভিযোগটি করেন একই ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা লোকমান হোসেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, দীর্ঘদিন থেকে ৯১নং করপাড়া মৌজার ২২৬৬ ও ২২৫৯ দাগের জমিটি ভোগ করেছেন ভুক্তভোগী লোকমানের বাবা। সে সুবাদে গত ২০১৫ সালে ঐ সম্পত্তিতে পাক ঘর নির্মাণের প্রস্তুতি নেয় সে। কিন্তু করপাড়া ইউপি চেয়ারম্যানের মুজিবের আত্মীয় ইব্রাহীম জমিটির মালিকানা দাবি করে একটি অভিযোগ করেন গ্রাম্য আদালতে। পরে ইউনিয়ন পরিষদের সেই আদালতে ১০ বার সালিশি বৈঠক করেছেন চেয়ারম্যান। এতে প্রতি বৈঠকে ৫ থেকে ১০ হাজার টাকা করে নিয়েও কোন সমাধান করেননি। উল্টো লোকমানদের মালিকানা জমির খতিয়ান সংশোধন করতে চাপ সৃষ্টি করেন। এছাড়াও ঘর নির্মাণে বাঁধা ও হয়রানি করেন। তবে ওই বিরোধকৃত সম্পত্তির কিছু অংশে ইব্রাহীমরা ঘর নির্মাণ করে বসবাস করছেন।

মালিকানাধীন জমিতে বাড়ি নির্মাণ করতে না পারায় জরাঝীর্ণ একটি টিনশেড ঘরে মানবেতর জীবন যাপন করছেন উল্লেখ করে লোকমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সহ প্রশাসনিক লোকদের দৃষ্টি কামনা করেন।

এসব অভিযোগের বিষয়টি অস্বীকার করে করপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মুজিবুল হক মুজিব বলেন, ‘সালিশের নামে টাকা আদায় নয়, খতিয়ান সংশোধনের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। তবে বিরোধকৃত সম্পত্তিতে ইব্রাহীমরা লোকমানদের অনুপস্থিতিতে ঘর নির্মাণ করেছেন।’ তবে খুব শিগ্রই বিরোধটি মীমাংশা করবেন বলে প্রতিবেদককে বলেন এই চেয়ারম্যান।

Print Friendly, PDF & Email