পশ্চিমবঙ্গে সিএএ বিরোধী ডাকা হরতালে গুলি, নিহত ২

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) এবং জাতীয় নাগরিক পঞ্জির (এনআরসি) প্রতিবাদে ডাকা হরতালে সংঘর্ষ ও গুলিতে দুই জন নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন আরও তিনজন।

বুধবার মুর্শিদাবাদের জলঙ্গিতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীদের বিরুদ্ধে জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছে।

নিহতরা হলেন, সানারুল বিশ্বাস (৬০) এবং সালাউদ্দি শেখ (১৭)। গুলিবিদ্ধ তিনজন স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। ঘটনার পরেই সাহেবনগরে পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

জেলার জলঙ্গি থানা এলাকার সাহেবনগরে সিএএ বাতিলের দাবিতে এবং এনআরসি’র বিরুদ্ধে বন্‌ধের (হরতালের) ডাক দেয় অরাজনৈতিক সংগঠন ‘নবজাগরণ’। স্থানীয়দের অভিযোগ সকাল থেকেই সাহেবনগর বাজারে অবস্থানে বসেন হরতাল সমর্থনকারীরা। এসময় তিন-চারটি গাড়িতে করে ওই বাজারে আসেন তৃণমূলের স্থানীয় নেতা ও কর্মীরা। তারা লাঠিসোটা হাতে নিয়ে গাড়ি থেকে নেমে হরতাল সমর্থনকারীদের সরে যেতে বলেন। এসময় দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি এবং এক পর্যায়ে সংঘর্ষ বেধে যায়। এক পর্যায়ে হরতাল সমর্থনকারীদের লক্ষ্য করে গুলি চালায় তৃণমূলের কর্মীরা। এসময় তারা নিহত হন।

এদিকে, তৃণমূলের মুর্শিদাবাদ জেলা সভাপতি আবু তাহের বলেন, ‘শারজিল ইমামের গ্রেফতারের প্রতিবাদে হরতালের ডাক দিয়েছিল একটি অরাজনৈতিক মঞ্চ। কিন্তু সেখানে সিপিএম-কংগ্রেসের সঙ্গে মিম-পিএফআই-এর মতো মৌলবাদী শক্তি ঢুকে পড়ে অশান্তি পাকানোর চেষ্টা করছে।”

তার দাবি, ‘আমার দলের নেতৃত্ব কেন গুলি চালাতে যাবে? এ সব মিথ্যে অভিযোগ। পুলিশ তদন্ত করুক। কিছু দুষ্কৃতী গুলি চালিয়ে এলাকায় অশান্তি সৃষ্টি করছে।

Print Friendly, PDF & Email