১৩ বছর হাতির ভয়ে গাছে বাস

বিজয় বলল যে, হাতি বাড়ি ভেঙে ফেলে। এমনকি রাতে ও তার বাড়িতে আক্রমণ করে। ভারতের আসাম রাজ্যের বিজয় ব্রহ্ম এই কারনে আর মাটিতে থাকেননি। গাছের ওপর ঘর বানিয়ে টানা ১৩ বছর সেখানেই রাত কাটাচ্ছেন!

বিজয়ের এমন কাণ্ডে গ্রামের মানুষ এখন তাকে ‘বনমানুষ’ বলে ডাকে।

বিজয় জানান, মানুষের সংস্পর্শে আসতে পছন্দ করেন না তেমন। ছোটবেলায় অনাথ হওয়ার পরে তিনি অন্যের বাড়িতে কাজ করতেন।

চৌকি বনাঞ্চলের কাছে তার বাড়ি ছিল। একলা মানুষ, তাই ছোট্ট ঘরই ছিল তার সম্বল। কিন্তু সেটাও প্রায়ই ভেঙে দিত হাতিরা।

বিজয় বলেন, ‘বারবার এই ঘটনার পরে ভাবলাম রাত নামলে যখন হাতির ভয়ে গাছেই উঠতে হয়, তখন খামোখা মাটিতে ঘর গড়ে কী লাভ? তাই কাঠ, তক্তা জোগাড় করে গাছের উপরেই ছোট্ট ঘর তৈরি করে ফেলি।’

এর পর অন্যের বাড়ির কাজও ছেড়ে দেন। জঙ্গলে যা পাওয়া যায় তাই খেয়ে থাকতেন তিনি। বছর ছয়েক চৌকি বনাঞ্চলের ভেতরে থাকার পরে পাগলাদিয়া নদীর পারে খৈরানি পথারের কাছে নতুন একটি গাছে বাসা বেঁধেছেন বিজয়। সেখানেও প্রায় সাত বছর হতে চলল।

বললেন, ‘বনের আলু, কচু, শাক, নদীর মাছ, কাঁকড়া- যা পাই তা খেয়েই আমার দিন চলে যায়। একা মানুষ আমি। এভাবেই ভালো আছি।

Print Friendly, PDF & Email