যে কারণে জাতীয় দলে ডাক পেলেন লক্ষ্মীপুরের হাসান মাহমুদ

নিজস্ব প্রতিবেদক :

পাকিস্তান সফরে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য ঘোষিত ১৫ সদস্যের দলের নতুন মুখ হাসান মাহমুদ। এবারের বিপিএলে সম্ভাবনার যে ঝিলিক দেখিয়েছেন তিনি, সেটিই তাকে নিয়ে এলো আরও বড় মঞ্চ আলোকিত করার চ্যালেঞ্জে। যদিও এবারের বিপিএলে উইকেটশিকারে তার নাম ওপরের দিকে নেই। বোলিং পরিসংখ্যান দেখলেও আহামরি কিছু মনে হবে না। ওভারপ্রতি ৯.২০ রান দিয়ে ১৩ ম্যাচে নিয়েছেন ১০ উইকেট নিয়েছেন। এর মধ্যে খুলনার বিপক্ষে ৩২ রানে ৪ উইকেট নিয়ে হয়েছিলেন ম্যাচ সেরা।

তবে ঢাকা প্লাটুনের হয়ে গতির ঝড় তুলেছেন ভালোই। ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৪২.৪০ কিমি গতি তুলেছেন তিনি। আর নিয়মিতই বল করেছেন ১৪০ কিলোমিটারের আশেপাশে। অনভিজ্ঞতার কারণে অনেক সময় রান দিয়েছেন বেশ, তবে দারুণ কিছু ডেলিভারিতে নিজের সম্ভাবনার প্রমাণও রেখেছেন হাসান মাহমুদ।

পাকিস্তান সফরের দলে তাকে নেওয়ার বিষয়ে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীনও নিশ্চিত করলেন, গতি ও ভবিষ্যৎ সম্ভাবনার দিকে তাকিয়েই নেওয়া হয়েছে হাসানকে।

হাসান মাহমুদ রাব্বি লক্ষ্মীপুর জেলা শহরের পৌর ৬নং ওয়ার্ডের বাঞ্চানগর গ্রামের মমিন ভেন্ডার বাড়ির মো. ফারুক হোসেনের ছেলে। তাঁর বাবা ভূমি মন্ত্রণালয়ের জরিপ বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা। দু’ভাই এবং তিন বোন আর বাবা মা নিয়েই তাদের সংসার। বড় ভাই আবুল হাসান হৃদয় সিএতে পড়াশুনা করছেন অ্যামরিকান ইউনিভার্সিটিতে। বোনরা বিবাহিত।

Print Friendly, PDF & Email