ছয় মাসে ১৭৫ একর রেলভূমি দখলমুক্ত

রেল দুর্ঘটনা রোধে লোকোমোটিভ ইঞ্জিনে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। একইসঙ্গে অবৈধভাবে রেলওয়ের জায়গায় বাসস্থান বা স্থাপনা তৈরি করছে উচ্ছেদ কার্যক্রমসহ তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করা হয়।

এসময় রেলপথ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়, গত ছয় মাসে ১৭৫ দশমিক ২০ একর রেলভূমি জবরদখলমুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া ৪০টি ব্রডগেজ ডিজেল ইলেকট্রিক লোকোমোটিভের ইঞ্জিন ক্যাবে সিসি ক্যামেরা স্থাপনের বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

সংসদ ভবনে আজ অনুষ্ঠিত রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির অষ্টম বৈঠকে এ তথ্য জানানো হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী। রেলপথ মন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন, মো. শফিকুল আজম খান, মো. সাইফুজ্জামান, গাজী মোহাম্মদ শাহ নওয়াজ ও নাদিরা ইয়াসমিন জলি বৈঠকে অংশ নেন।

সংসদের গণসংযোগ বিভাগ জানায়, বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের ছয়টি ও পূর্বা লের চারটি হাসপাতালের জরাজীর্ণ অবস্থার উন্নয়ন, চট্টগ্রাম সিআরবি এলাকায় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন ও এলাকার সৌন্দর্য বৃদ্ধি, বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের পাঁচটি ও পূর্বাঞ্চলের পাঁচটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের জরাজীর্ণ ভবন সংস্কার, বেঞ্চ সহ শিক্ষা উপকরণ সরবরাহের বিষয়ে সুপারিশ করে কমিটি। বৈঠকে অবৈধভাবে রেলওয়ের জায়গায় বাসস্থান, স্থাপনা তৈরি করে যারা রেলওয়েকে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করছে, তাদের বিরুদ্ধে স্থানীয় প্রশাসনের সহায়তায় নিয়মিতভাবে অভিযান পরিচালনা করে উদ্ধার কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email