ইভিএম পদ্ধতি রাখলেও আ’লীগ থাকবে, না রাখলেও আ’লীগ থাকবে

নোয়াখালী :

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, নির্বাচন কমিশন সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ইভিএম পদ্ধতি রাখলেও আওয়ামীলীগ নির্বাচনে থাকবে, না রাখলেও থাকবে। এ নিয়ে বিতর্কের কিছু নেই।

তিনি মঙ্গলবার (৭ জানুয়ারি) দুপুরে তার নিজ নির্বাচনি এলাকা কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার জিরো পয়েন্টে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী মুজিব বর্ষ উদযাপনে বছরব্যাপি কর্মসূচির ফলক উন্মোচন এবং শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণকালে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, খুলনায় ৭১ টিভির সাংবাদিক রকিব উদ্দিন পান্নুকে নির্যাতনের ঘটনা যাচাই-বাছাই করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্ত্রী বলেন, কবিরহাট ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় এ পর্যন্ত শীতার্তদের মাঝে ১৬ হাজার কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। এর পাশাপাশি শিশু ও দুস্থদের জন্য শুকনো খাবার দেওয়া হয়েছে।

তাকে ৩য় বারের মত বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করে বলেন, গত ১০ বছরে দেশে যে উন্নয়ন হয়েছে, তা জনগণের কাছে দৃশ্যমান। এ উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে।

এর আগে, তিনি কবিরহাট পৌরসভার হাজী ইদ্রিছ মিলনায়তনে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করেন। পরে, মন্ত্রী তার মা ও বাবার কবরস্থান জিয়ারত করেন।

এসময়, আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, জেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক ও নোয়াখালী-৪ (সদর ও সুবর্ণচর) আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী, নোয়াখালী-৬ আসনের সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদৌস, জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি অধ্যক্ষ এএইচএম খায়রুল আনম চৌধুরী সেলিম, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি খিজির হায়াত খান, হাতিয়া উপজেলা সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য মোহাম্মদ আলী, কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি শাহাব উদ্দিন, বসুরহাট পৌরসভার মেয়র মীর্জা আবদুল কাদের, কবিরহাট উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কামরুন্নাহার শিউলি, কবিরহাট উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি নুরুল আমিন রুমি, সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র জহিরুল হক রায়হান, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান একেএম সামছুদ্দিন জেহান, নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র শহিদ উল্যাহ খান সোহেল, চৌমুহনী পৌরসভার মেয়র আক্তার হোসেন ফয়সলসহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email