‘সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিয়ে ফের কাঠগড়ায় ইমরান’

পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রবেশে অবস্থিত নানকানা সাহিব গুরুদ্বারে হামলার ঘটনা ঘটেছে। এর পরপরই দেশটির প্রথম শিখ টেলিভিশন অ্যাঙ্কর হরমিত্ সিংয়ের ভাইকে প্রকাশ্যে খুন করা হয়েছে বলে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে বলা হয়েছে।

জানা গেছে, পেশোয়ারে পরবিন্দর নামে ওই ব্যক্তিকে দিনদুপুরে খুন করে দুষ্কৃতিরা। এ ঘটনায় সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিয়ে ফের প্রশ্নের মুখে পাকিস্তান।

এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী ইমরান সরকারকে একহাত নিয়ে পাঞ্জাবে অকালি দলের নেতা মনজিন্দর সিরসা টুইট করে বলেছেন, নির্দিষ্ট সম্প্রদায়কে লক্ষ্য করেই খুন করা হয়েছে। কারণ, শিখ এবং অন্যান্য সংখ্যালঘুর উপর উদাসীন ইমরান খান। এরপরই সিএএ সমর্থন জাহির করে ‘উই সাপোর্ট সিএএ’ হ্যাসট্যাগ জুড়ে দেন।

উল্লেখ্য, পাঞ্জাব প্রদেশে গুরুনানকের জন্মস্থান নানকানা সাহিবের গুরুদ্বারে তুমুল বিক্ষোভ প্রদর্শন করে কিছু মানুষ। ভিন ধর্মে বিয়ে হচ্ছে অভিযোগ করে ঘিরে ফেলা হয় গুরুদ্বারটি। পাথর ছোড়া হয় পুণ্যার্থীদের লক্ষ্য করে। সেই ভিডিও ছড়িয়ে পড়তে নড়েচড়ে বসে ইমরানের প্রশাসন।

পরে বিবৃতি দিয়ে ইমরান সরকার জানায়, নানকানা সাহিব গুরুদ্বার অক্ষত রয়েছে। অপবিত্র হওয়ার কোনো ঘটনা নেই। খাইবার পাখতুনখাওয়া প্রদেশে বাসিন্দা হরমিত্ সিং পাকিস্তানের প্রথম নিজউ অ্যাঙ্কর। তার ভাইয়ের মৃত্যু হওয়ায় স্বভাবতই প্রশ্ন উঠছে পাকিস্তানে সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিয়ে।

সূত্র : জি নিউজ।

Print Friendly, PDF & Email