‘দরজা খুলতেই ফ্ল্যাটে ঢুকে পড়ে দুই মুখোশধারী’

রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার শান্তিনিকেতনের নিজ ফ্ল্যাটে অজ্ঞাত পরিচয়ের মুখোশধারী দুর্বৃত্তদের হামলায় খুন হয়েছেন করিমগঞ্জের তোবারক পাগলা ওরফে পাগলা মামা।

বুধবার ভোরে এই ঘটনা ঘটে। পুলিশ নিহত ব্যক্তির এক কর্মীসহ কয়েকজনকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করছে। তোবারক হোসেন (৬৫) ওরফে পাগলা মামা কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলা সদরের চরপাড়া গ্রামের মৃত ফজলুল হকের দ্বিতীয় ছেলে। মহাখালী ফ্লাইওভারের কাছে তার মামা প্লাজা নামে একটি বহুতল মার্কেট রয়েছে।

তিনি শান্তিনিকেতনের একটি ভবনের চারতলায় নিজ ফ্ল্যাটে একা থাকতেন। তিনি চট্টগ্রামের হাটহাজারীর শফিউল বশর মাইজভাণ্ডারীর অনুসারী ছিলেন।

তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা গেছে, বুধবার ভোরে হঠাৎ তোবারকের ফ্ল্যাটে কলিংবেল বেজে ওঠে। এ সময় তার এক কর্মী দরজা খোলামাত্রই দুই মুখোশধারী ফ্ল্যাটে ঢুকে পড়ে। দুর্বৃত্তরা এ সময় তোবারককে উপর্যুপরি কুপিয়ে গুরুতর জখম করে পালিয়ে যায়। তার কর্মী থানায় ফোন করে এ ঘটনা জানায়।

খবর পেয়ে তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তোবারককে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে মহাখালীর মেট্রোপলিটন হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজের মর্গে পাঠায় পুলিশ।

পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপ-কমিশনার ওয়াহিদুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, তোবারকের ফ্ল্যাটের আলমারি ভাঙা অবস্থায় পাওয়া গেছে। সেখান থেকে টাকা লুট হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, তোবারকের বাসায় মাইজভাণ্ডারীর ভক্তরা নিয়মিত আসতেন। মতাদর্শগত বিরোধ কিংবা টাকা লুটের জন্য এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটতে পারে বলে মনে করছেন তিনি।

Print Friendly, PDF & Email