রাজাকারের তালিকা নিয়ে এ কোন গভীর ষড়যন্ত্র?

রাজাকার রক্ষার চক্রান্ত নাকি শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্র? মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রী ও তার মন্ত্রণালয়ের এ ব্যর্থতা বিতর্ক কেনো?

রাজাকারের তালিকায় রাজাকার বাদ পড়ছে, মুক্তিযোদ্ধা ও বীর সংগঠকদের নাম আসছে! এ কোন গভীর ষড়যন্ত্র? কাদের কালো হাত নেপথ্যে? জাতির পিতার কন্যার দল ক্ষমতায়, স্বাধীনতা পদক নেওয়া মুক্তিযোদ্ধা আ ক ম মোজাম্মেল হক এ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী! তবু কেনো এমন তালিকা আসছে?

মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রী ও তার মন্ত্রণালয় এবং মাঠের প্রশাসনের কর্মকর্তাদের জবাবদিহিতায় আসতেই হবে।

এখন বিএনপি জামায়াত ক্ষমতায় নেই, সামরিক শাসনের কবল থেকে কত আগে মুক্ত স্বদেশ। টানা ১১ বছর মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বের দল ক্ষমতায়, এখন এই বিতর্কিত তালিকার দায় কাউকে দেয়া যাবে না।এই ব্যর্থতার দায় নিয়ে আমাদের গৌরব ও রক্তমাখা আবেগ অনুভূতি ও জাতির ইতিহাসের সাথে প্রতারণা যারা করছে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যাবস্থা নিতেই হবে। এটা রাজাকার রক্ষার ষড়যন্ত্র নাকি শেখ হাসিনার সরকার বিরোধী চক্রান্ত? নাকি গোটা দেশ আওয়ামী লীগ হয়ে যাবার পরিণতি? এ অন্যায় যারাই করেছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া না হলে মন্ত্রীর পদত্যাগ করা উচিত। তিনি আজ যুদ্ধাপরাধী ও রাজাকার ও পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর দোসরদের এবং তাদের সন্তানদের মুখে উল্লাসের হাসি তুলে দিয়েছেন।

লেখক: পীর হাবিবুর রহমান, নির্বাহী সম্পাদক, বাংলাদেশ প্রতিদিন।

Print Friendly, PDF & Email