নিহত মৌলিকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর উপপ্রেস সচিবের আবেগঘন স্ট্যাটাস

সড়ক দুর্ঘটনা কেড়ে নিল ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্রীবিষয়ক সম্পাদক ফারমিন মৌলির প্রাণ। মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) ঢাকা থেকে গোপালগঞ্জ নেমে মোটরসাইকেলে করে পিরোজপুরের নাজিরপুর ফেরার পথে রাত ৮টার দিকে এক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হন মৌলি।

নিহত ফারমিন মৌলি নাজিরপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান মো. মোশারেফ হোসেন খানের দ্বিতীয় কন্যা।

মৌলির অকাল প্রয়াণে হতবিহল ও শোকাহত আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেদের অ্যাকাউন্টে শোকগাঁথা লিখছেন অনেকেই।

মৌলির এভাবে না ফেরার দেশে চলে যাওয়া মেনে নিতে পারছেন অনেকেই। বিশ্বাস করত কষ্ট হচ্ছে মৌলির স্বজন, সহপাঠী ও সংগঠনের নেতাকর্মীদের।

এ বিষয়ে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্টে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপপ্রেস সচিব আশরাফুল আলম খোকন।

পাঠকের উদ্দেশে তার সেই স্ট্যাটাসটি দেয়া হলো-

‘সংবাদটা দেখার পর প্রথমে বুঝতেই পারিনি। আসলে বিশ্বাস করতেই কষ্ট হচ্ছিল ফারমিন মৌলির মৃত্যুর সংবাদটা ছিল বিনা মেঘে বজ্রপাতের মতো। আমার সঙ্গে পরিচয় খুব বেশি দিনের না। কিন্তু খুবই কাছের মনে হতো। আপাদমস্তক পলিটিক্যাল একটি মেয়ে। অনলাইনে দলের প্রচারের কাজে খুবই দক্ষ ছিল। সেই সূত্রেই পরিচয় ও নিয়মিত যোগাযোগ ছিল।
তার বাবা নাজিরপুর উপজিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও নির্বাচিত চেয়ারম্যান। সে নিজেও ছিল পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এবং ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের ছাত্রী বিষয়ক সম্পাদক। পড়ত নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে।

সর্বশেষ কিছুদিন আগে আমার সঙ্গে কথা হয়েছিল চাকরি সংক্রান্ত বিষয়ে। বলেওছিলাম শিগগিরই একটা ভালো চাকরির ব্যবস্থা করে দিব। আজ আকস্মাৎ এই মৃত্যু সংবাদ। মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছে।

ওপারে ভালো থেকো বোন আমার …’

Print Friendly, PDF & Email