সৌদি প্রিন্সের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা নিয়ে মুখ খুললেন লিন্ডসের বাবা

সৌদি আরবের ক্ষমতাসীন যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সমালোচনার শেষ নেই।  বিশেষ  করে তার পশ্চিমা সংস্কৃতিপ্রীতি অনেকেই ভালো চোখে দেখেন না।  তবে এত সমালোচনার পরও তার জীবনযাপন পদ্ধতিতে কোনো পরিবর্তনই আসেনি বলে দাবি তার সমালোচকদের।

সম্প্রতি মার্কিন অভিনেত্রী ও গায়িকা লিন্ডসে লোহানের সঙ্গে সৌদি প্রিন্সের ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের বিষয়টি সামনে আসে। তখন মুসলিম বিশ্বে ব্যাপক সমালোচিত হন তিনি। বিশেষ করে মুসলমানদের সবচেয়ে পবিত্র দেশ হিসেবে বিবেচিত সৌদি আরবের নেতা হয়েও পশ্চিমা এক নায়িকার সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়টি অনেকেই স্বাভাবিকভাবে নেয়নি।

সম্প্রতি আরেকবার লিন্ডসে লোহানের সঙ্গে প্রিন্সের সম্পর্কের বিষয়টি সামনে আসার পর সৌদি আরবের ক্ষমতাসীন যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান সঙ্গে সঙ্গে তা অস্বীকার করেন। তারপরও এটা নিয়ে আলোচনা শেষ হয়নি। এবার বিন সালমান- লিন্ডসে লোহানের সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুলেছেন লোহানের বাবা।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ইনডিপেনডেন্ট এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, লিন্ডসে লোহানের বাবা তার মেয়ের সঙ্গে সৌদি যুবরাজের সম্পর্কের বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তবে এই সম্পর্ক ঘনিষ্ঠ নয় বলে উল্লেখ করেন তিনি।

ইনসেটে লিন্ডসের বাবা

মার্কিন অভিনেত্রী ও গায়িকার বাবা মিশেল লোহান বলেন, আমার মেয়ের সঙ্গে সৌদি আরবের যুবরাজের আদর্শ ও সম্মানজনক সম্পর্ক রয়েছে। তবে তাদের মধ্যে কোনো ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক নেই।

তিনি আরও বলেন, তারা শুধু বন্ধুই। তাদের মধ্যে কোনো প্রেমের সম্পর্ক নেই। মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে লিন্ডসের অনেক বন্ধু আছে। কারণ, বিভিন্ন কাজে প্রায়ই অঞ্চলটিতে যায় সে। মানুষ লিন্ডসের ভালো কাজগুলো দেখে না, তারা শুধু খারাপ দিকগুলো তুলে ধরে।